শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ ।। ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ ।। ১৩ মহর্‌রম ১৪৪৬


পুরোনো স্মার্টফোন কেনার আগে যা জানতে হবে

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ফাইল ছবি

স্মার্টফোন এখন নিত্যদিনের সঙ্গী। বিভিন্ন কাজে স্মার্টফোন ব্যবহারের পাশাপাশি বিনোদন মাধ্যমেও পরিণত হয়েছে এটি। তরুণ-তরুণীরা তো এখন ফোন ছাড়া চলতেই পারে না। শিক্ষা কার্যক্রমেই এখন নিয়মিত ব্যবহার করা হচ্ছে ফোন। তাই প্রতিনিয়তই বিভিন্ন কোম্পানি আপডেট সব ফিচার নিয়ে স্মার্টফোন বাজারে আনছে। পছন্দের কোম্পানি মার্কেটে নতুন ফোন লঞ্চ করার আগে অনেকেই অপেক্ষায় থাকেন। আবার অনেকেই পুরাতন স্মার্টফোন কিনে ব্যবহার করে থাকেন। এর জন্য বিভিন্ন মার্কেট প্লেসে থাকে তাদের আনোগোনা। 

তবে পুরোনো ফোন কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতাকে অবশ্যই বাড়তি কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ফোন কেনার সময় মালিকানা নথিসহ বেশ কিছু বিষয় যাচাই না করলে পরে সমস্যা হতে পারে। চলুন জেনে নেয়া যাক পুরোনো স্মার্টফোন কেনার আগে যেসব বিষয় লক্ষ্য রাখা জরুরি।

ব্যাটারির কার্যকারিতা যাচাই

স্মার্টফোনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ব্যাটারি ব্যাকাপ। কারণ ব্যাটারি ব্যাকাপ ভালো না থাকলে যতই ভালো ফোন কিনুন না কেনো সেটি বেশিদিন বা মনের মত করে ব্যবহার করা যায় না। তাই পুরাতন স্মার্টফোন কেনার সময় ব্যাটারির চার্জ কি পরিমাণ থাকে সেটি পরীক্ষা করে দেখা উচিত।

ফোনের অপারেটিং সিস্টেম

অপারেটিং সিস্টেম ছাড়া একটি স্মার্টফোন তার গ্রহণযোগ্যতা হারায়। প্রতিনিয়তই নতুন নতুন অপারেটিং সিস্টেম বের হচ্ছে। কিন্তু পুরাতন ফোন কেনার আগে অপারেটিং সিস্টেম দেখে নেয়া দরকার। কেনার সময় দেখা উচিত অপারেটিং সিস্টেম আপডেট হবে কিনা। হলে সেটি কবে হেতে পারে। রানিং অপারেটিং সিস্টেমে কোনো ল্যাকিংস আছে কিনা। তা না হলে ফোনে ধীরগতি দেখা দিতে পারে।

ফোনের বর্তমান অবস্থা

পুরোনো ফোন কেনার আগে প্রথমেই ফোনের বাহ্যিক অংশ ও পর্দায় কোনো ত্রুটি রয়েছে কি না, তা যাচাই করে নিতে হবে। পর্দায় দাগ রয়েছে কি না বা ফোনের পর্দায় সব বাটন ঠিকমতো কাজ করছে কি না,তা দেখতে হবে।

ফোন কত দিনের পুরোনো

ফোনটি কত দিনের পুরোনো, তা অবশ্যই জানতে হবে। কারণ, বেশি পুরোনো মডেলের ফোন হলে অপারেটিং সিস্টেমের পাশাপাশি বিভিন্ন সফটওয়্যার হালনাগাদ করা যায় না। সমস্যা সমাধানে ফোনটির মডেল ইন্টারনেটে সার্চ করে বিস্তারিত তথ্য জানতে হবে।

ফোনের কার্যকারিতা পরীক্ষা

অনেক সময় ফোনের লুক সুন্দর দেখেই ক্রেতারা পুরাতন ফোন কিনে নেন। কিন্তু এটির কার্যকারিতা কতটুকিু তার যাচাই করে না। এতে ফোন কেনার কিছু দিনের মধ্যে মন খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই ফোন কেনার আগে ইন্টারনেট, সিমের নেটওয়াক বা নেটওয়াক আইসি সঠিকভাবে কাজ করছে কি না যাচাই করা উচিত।  

ক্যামেরার বা এর ফোকাস সিস্টেম

পুরাতন ফোনের ক্যামেরার ফোকাস সিস্টেম কেমন সেটিও দেখা প্রয়োজন। কারণ অনেকেই সেটের ক্যামেরা নিয়ে বেশি আগ্রহ থাকে। তাই ক্যামেরা খুঁটিনাটি সব নিজের মত করে দেখে নেয়া উচিত।

স্পিকার সিস্টেম

ভালো সাউন্ড কোয়ালিটিসহ স্টেরিও স্পিকার ছাড়া স্মার্টফোন কেনা উচিত নয়। ভালো সাউন্ড কোয়ালিটি না থাকলে সেই স্মার্টফোন গ্রাহক আকৃষ্ট করতে পারবে না। তাই পুরাতন ফোনের নির্বাচনের আগে স্পিকার ঠিক আছে কিনা সেটি দেখতে হবে।

সিম সাপোর্ট

অনেক সময় সিম কার্ডের স্লটে সমস্য দেখা দেয়। এতে সিমের নেটওয়াক পাওয়া যায় না। তাই পুরাতন সেট কেনার আগে সিমের স্লট ঠিক আছে কিনা সিটে দেখা দরকার।

ওয়ারেন্টি সম্পর্কে জানা

বেশিরভাগ পুরাতন ফোনে ওয়ারেন্টি থাকে না। তবে পুরাতন ফোন কেনার আগে ওয়ারেন্টি কার্ড যদি থাকে সেটি ভালো করে যাচাই করে নিতে হবে। এতে করে ফোনে কোনো প্রকারের সমস্যা দেখা গেলেও তা নির্দিষ্ট এবং নির্ভরযোগ্য সার্ভিসিং সেন্টারে মেরামতের সুযোগ থাকে। ফলে, ফোনটি নষ্ট হওয়ার ঝুঁকিও কমে আসে।

এনএ/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ