সোমবার, ২০ মে ২০২৪ ।। ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ ।। ১২ জিলকদ ১৪৪৫


শরহে বেকায়া জামাতে উত্তীর্ণ না হলে মিশকাত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না : বেফাক

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার

শরহে বেকায়া জামাতে উত্তীর্ণ না হলে মিশকাত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না কোনো শিক্ষার্থী।

কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ সম্প্রতি এমন ‘জরুরি ইত্তেলা’ দিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে বেফাক জানায়, ‘এতদ্বারা বেফাকভুক্ত মাদরাসাসমূহের মুহতামিমগণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, নিম্নে উল্লেখিত বছর থেকে ছাত্রদের বেলায় সানাবিয়্যা উলিয়া সানিয়া অর্থাৎ শরহে বেকায়া জামাত এবং ছাত্রীদের বেলায় সানাবিয়্যা সানিয়া অর্থাৎ শরহে বেকায়া জামাতে বেফাকসহ হাইআভুক্ত ৬ বোর্ডের যে কোনো বোর্ড হতে উত্তীর্ণ না হলে এবং এরপর ফযীলত উলা অর্থাৎ হেদায়া জামাত না পড়লে, সে শিক্ষার্থী আসন্ন ৪৮তম (১৪৪৬ হি.) কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফযীলত সানিয়া অর্থাৎ মিশকাত জামাতের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। তখন স্বভাবতই পরবর্তী বছর অর্থাৎ ১৪৪৭ হিজরি সনে আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামি'আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ-এর অধীনে তাকমীল পরীক্ষায়ও অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

কেননা, আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামি'আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ-এর নেসাব উপ-কমিটির সিদ্ধান্ত এবং স্থায়ী কমিটি কর্তৃক অনুমোদনের ভিত্তিতে ১৪৪৬-১৪৪৭ হিজরি শিক্ষাবর্ষ থেকে দাওরায়ে হাদীস (তাকমীল) পরীক্ষার জন্য মধ্যবর্তী জামাতের ধারাবাহিকতাসহ ছাত্রদের ক্ষেত্রে ফযীলত সানিয়া ও সানাবিয়্যা উলিয়া সানিয়াতে এবং ছাত্রীদের ক্ষেত্রে ফযীলত সানিয়া ও সানাবিয়্যা সানিয়াতে ৬ বোর্ডের যে কোন বোর্ড হতে উত্তীর্ণ হওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়।

উক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিগত ২৮/১১/১৪৪৩ হিজরি মোতাবেক ২৯/০৬/২০২২ ঈসাব্দ তারিখে অনুষ্ঠিত বেফাকের মজলিসে খাস-এর সভায় "৪৬তম (১৪৪৪ হি.) কেন্দ্রীয় পরীক্ষা হতে সানাবিয়া উলিয়ার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা বাধ্যতামূলক করা এবং সানাবিয়া উলিয়া পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হবে তারাই দুই বৎসর পর ১৪৪৬ হিজরির ফযীলত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে” মর্মে গৃহীত সিদ্ধান্ত বিগত ২৩/১২/১৪৪৩ হি. তারিখে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি আকারে এবং বেফাকভুক্ত মাদরাসাসমূহে চিঠি আকারে প্রেরণ করা হয়েছে।'

হাআমা/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ