fbpx
           
       
           
       
সাড়া ফেলেছে আবু রায়হানের ভিন্নধর্মী নাশিদ ‘আনতাল মাওলা’
আগস্ট ১২, ২০২২ ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ

।। আবু সাঈদ ।।

সঙ্গীত এখন কেবলই মনোরঞ্জনের বাহন নয়। তার আবেদন আরো পরিব্যাপ্ত হয়েছে। এখন সুরের মুর্ছনা যেমন হৃদয়কে স্পর্শ করে, অন্তরে বিশুদ্ধ ও নির্মল বিশ্বাসেরও বীজ বপন করে। তারই প্রমাণ মেলে কলরবের সহযোগী পরিচালক জনপ্রিয় নাশিদ শিল্পী আবু রায়হানের সদ্য রিলিজ হওয়া ‘আনতাল মাওলা’ গানে।

নাশিদটি সঙ্গীতের তালে তালে যেমন হৃদয়কে স্পর্শ করে, সমর্পিত চিত্তে আল্লাহ তাআলার কাছেও ফিরিয়ে আনে। ফলে অল্পদিনেই বিপুল পরিমাণে সাড়া ফেলতে সক্ষম হয় দারুণ এ নাশিদটি। অসাধারণ এ সঙ্গীত নিয়ে জনপ্রিয় নাশিদ শিল্পী আবু রায়হানের সাথে কথা হয় আওয়ার ইসলামের।

আবু রায়হান বলেন, আমি এ নাশিদের মাধ্যমে মানুষের হৃদয় স্পর্শ করার চেষ্টা করেছি। অতঃপর তাতে বুননের চেষ্টা করেছি বিশুদ্ধ ও নির্মল বিশ্বাসের বীজ।’

‘হৃদয়ের ডালে ডালে পাপের বাসা, আবিলতা ঘেরা চারপাশ’ পঙক্তি দিয়ে শুরু হওয়া গানটি প্রথমেই শ্রোতাদের হৃদয়ে নিজের পাপবোধ জাগাবার চেষ্টা করেছে। ‘নফসের রোগব্যাধি ভয়াল রূপে, করে যায় আঁধারের চাষ’ পঙক্তি যোগে সে পাপবোধকে রীতিমতো উস্কে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। অতঃপর ‘গুনাহর ক্ষত যত করে দাও সাফ, রাঙাও এ হৃদয়ের তীর…. আনতাল মাওলা আনতাল বাছির নি’মাল মাওলা নি’মান নাছির’ পঙক্তির মাধ্যমে সমর্পিত হৃদয়ে আল্লাহ তাআলার দিকে টেনে আনা হয়েছে।

গানটির ভিডিওতেও রয়েছে গভীর আবেদন। অসাধারণ চিত্রনাট্য। পাহাড়ি অঞ্চলে যারা মানুষকে ঈমানের দিকে আহবান করে, তাদের জীবন বড় বিপদসঙ্কুল। সেখানে অনেক মতবাদের দাওয়াত রয়েছে। ইসলামের দাওয়াতকে অন্যরা অশনি সংকেত জ্ঞান করে। সেজন্য ইসলামের ফেরিওয়ালাদের তারা হত্যা করে। এমন একটি আবহের মধ্য দিয়ে ভিডিওটি এগিয়ে নেওয়া হয়েছে। যেন প্রচ্ছন্নভাবে ওমর ফারুক ত্রিপুরার হত্যাকাণ্ডই স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আবু রায়হান নাশিদটির মাধ্যমে একটি উন্মুক্ত আকাশ চেয়েছেন। চেয়েছেন শ্বাস নেওয়ার মতো বিমল বাতাস। বিচরণের মতো অভয়ারণ্য ভূমি। যেন হেদায়েতের বার্তা ছড়ানো যায়। সমর্পিত হওয়া যায় পরম সেজদায়। এ ব্যাপারে কলরবের সিনিয়র এ শিল্পী বলেন, ‘এমন কাহিনি বেইজড নাশিদ ইসলামী সঙ্গীত অঙ্গনে খুবই কম। সেজন্য বিপুল পরিমাণে সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে।’

দারুণ এ নাশিদের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে আবু রায়হান বলেন, ‘আমি আশা করি, এই নাশিদটি ইসলামী সঙ্গীতের অঙ্গনে ভিন্ন মাত্রা যোগ করবে।’

‘আনতাল মাওলা’ টাইটেলের জনপ্রিয় এ নাশিদের গীতিকাব্য লিখেছেন তারেক আল মাহদী। সুর করেছেন এইচ আহমাদ। সাউন্ড ডিজাইনে ছিলেন তানজিম রেজা। ভিডিওগ্রাফিতে ছিলেন এইচ আল হাদি।

পুরো নাশিদটি নিম্নরূপ:

হৃদয়ের ডালে ডালে পাপের বাসা আবিলতা ঘেরা চারপাশ
নফসের রোগব্যাধি ভয়াল রূপে করে যায় আঁধারের চাষ।

গুনাহর ক্ষত যত করে দাও সাফ রাঙাও এ হৃদয়ের তীর
আনতাল মাওলা আনতাল বাছির নি’মাল মাওলা———নি’মান নাছির

গুনাহের বোঝা বয়ে চলি দিনরাত চাই প্রভু তব হিদায়াত
খুঁজে পাই হে প্রভু মহীমা তোমার আকাশের বিশালতায়!

করতে শোকর সেই অশেষ নিয়ামার সিজদাতে অবনত শির….
নসীব করো মোরে শীতল আবাস অসীম প্রেমের ছায়ানীড়

তোমার কৃপায় বাঁচি ফিরে পাই প্রাণ ঘুরি ফিরি নিখিল এ ধরায়
খুঁজে পাই হে প্রভু মহীমা তোমার আকাশের বিশালতায়!
করতে শোকর সেই অশেষ নিয়ামার সিজদাতে অবনত শির….

কেএল/

সর্বশেষ সব সংবাদ