fbpx
           
       
           
       
শাবিপ্রবি ছাত্রীদের রাত ১০টার মধ্যে হলে প্রবেশের নির্দেশ
আগস্ট ১০, ২০২২ ২:৫২ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ছাত্রীদের রাত ১০টার মধ্যে আবাসিক হলে প্রবেশের নির্দেশ দিয়েছে হল প্রশাসন।

রোববার (৭ আগস্ট) বিকেলে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্ট (ভারপ্রাপ্ত) জোবেদা কনক খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরের ছাত্রী হল ও ক্যাম্পাসের বাইরে অবস্থানরত হলগুলোর সব ছাত্রীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে আগের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী রাত ১০টার মধ্যে হলে ঢুকতে হবে। এ সময়ের বিলম্ব হয়ে থাকলে রাতে হলে ঢোকার ক্ষেত্রে নিজ নিজ হল ও বাইরের হলগুলোর দায়িত্বে থাকা সহকারী প্রভোস্ট অথবা সুপারদের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করতে হবে।

এ ছাড়া খাতায় ছাত্রীদের নাম, বিভাগ, কক্ষ নম্বর ও মোবাইল নম্বর সঠিকভাবে লিখে প্রবেশ করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ছাত্রী হলের প্রাধ্যক্ষ জায়েদা শারমিন জানান, ছাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থে হলে প্রবেশের নিয়ম আগেও ছিল। যেহেতু লাইব্রেরি রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকে তাই আমাদের ছাত্রীদেরও রাত ১০টার মধ্যে হলে প্রবেশের জন্য বলা হয়েছে। বিশেষ করে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের হলের নিয়ম সম্পর্কে অবগত রাখতেই এ নোটিশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক নিরাপত্তায় প্রক্টরিয়াল বডির টহল অব্যাহত আছে।

সরেজমিন দেখা যায়, রাত ১০টার পর প্রক্টরিয়াল টিমের সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকাগুলোতে নিয়মিত পরিদর্শন করছেন। নির্দিষ্ট সময়ের পর শিক্ষার্থীদের হলমুখী হওয়াসহ সার্বিকভাবে শৃঙ্খলার বিষয়টি তদারকি করছেন।

শাবিপ্রবি প্রক্টর মো. ইশরাত ইবনে ইসমাইল জানান, প্রক্টরিয়াল বডির টহল আমাদের রুটিন ওয়ার্ক। আমাদের আগেও এ টহল কার্যক্রম ছিল। বর্তমানে এ কার্যক্রমকে আরও জোরদার করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভালের দায়িত্ব রেজিস্ট্রার দফতরের নিরাপত্তা বিভাগ। প্রক্টরিয়াল বডি শিক্ষার্থীদের শৃঙ্খলার কাজটি করে থাকে।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক আমিনা পারভীন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য (বিশেষ করে ছাত্রী হলগুলোতে) যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে তা আগেও ছিল। শিক্ষার্থীদের মধ্যে নির্দিষ্ট সময়ের বেশি হলের বাইরে অবস্থানের যে অভ্যাস তৈরি হয়েছে তা থেকে ফেরানোর জন্যই এমন পদক্ষেপ। এখানে শিক্ষার্থীদের মতপ্রকাশ বা স্বাধীনতায় কোনোরকম হস্তক্ষেপ করা হয়নি। শিক্ষার্থীদের সার্বিক নিরাপত্তার দিক মাথায় রেখেই এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে একদম নতুন। তাদের হল বিষয়ে নিয়মকানুন সম্পর্কে অবগত রাখতেও এ নির্দেশনা। আশা রাখছি, শিক্ষার্থীরা নিজেরা সচেতনভাবে এ নির্দেশনা মেনে চলবে।

-এএ

সর্বশেষ সব সংবাদ