শিরোনাম :
অগ্রীম টাকা নিয়ে মাহফিল বর্জন মাওলানা জিহাদীর: আসল ঘটনা কী?
ডিসেম্বর ১৩, ২০২১ ৯:২৬ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: ইসলামী বক্তা মাওলানা ইলিয়াছুর রহমান জিহাদীর বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে মাদারীপুর জেলার সদর উপজেলার খাগছাড়া এলাকাবাসী। তাদের অভিযোগ, ‘মাওলানা জিহাদী অগ্রিম টাকা (বায়নার টাকা) নিয়ে মাহফিলে অংশ নেননি।’

আওয়ার ইসলামের পক্ষ থেকে মাওলানা ইলিয়াছুর রহমান জিহাদীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘তারা ডেট স্থগিত করেছে। তাই আমি অন্যত্র (মাহফিলের) ডেট দিয়ে দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘গত কিছুদিন পূর্বে যে বৃষ্টি হয়, সে সময় মাহফিলের আয়োজক আমাকে ফোন করে বললেন, আমাদের এখানেতো বৃষ্টি হচ্ছে। এখন কী করা যায়? মাহফিলের ডেট কিছুদিন পিছিয়ে দিন। আমি বললাম যে, আমার তো ডেট খালি নেই। তবে যদি খালি হয় তবে জানাবো। তবে আপাতত ডেট অফ থাক। সে সময় আমি অন্যত্র মাহফিলের ডেট দিয়ে দেই।’

তবে কোথায় ডেট দিয়েছেন, এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘সেটা দিয়ে আপনার কোনো কাজ নেই। আপনারা যা করার তাতো করেই ফেলেছেন।’ এ সময় তিনি আওয়ার ইসলামের কিছু প্রশ্নের জবাব না দিয়েই ফোন কেটে দেন।

মাহফিলের আয়োজক দক্ষিণ খাগছাড়া নুরীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার সভাপতি কাজী ফজলুল হক গণমাধ্যমকে জানান, ‘ওয়াজ করার জন্য তার সাথে ৬৫ হাজার টাকায় চুক্তি হয়। এরইমধ্যে ১০ হাজার টাকা অগ্রিমও দেওয়া হয়। পরে জানতে পারি তিনি মাদারীপুরে ওয়াজে অংশ নেবেন না। একই দিনে বগুড়া জেলায় টাকা বেশি পাওয়ার কারণে সেখানে ওয়াজ মাহফিলে অংশ নিবেন এই বক্তা। এই ঘটনার বিচার দাবি করছি।’

তবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ মল্লিক আওয়ার ইসলামকে বলেন, ‘মাহফিল আয়োজক কমিটি আমাকেও বিষয়টি জানিয়েছে। শুনেছি মাওলানা ইলিয়াছুর রহমান জিহাদী অগ্রীম টাকা নিয়েছেন। কিন্তু মাহফিলের আগে তারিখ ক্যান্সেল করেছেন। এর বেশি কিছু আমি জানি না।’

মাদারীপুর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ওবায়দুর রহমান খান আওয়ার ইসলামকে বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। কেউ আমার কাছে কিছু বলেনি এখনও। আপনার (প্রতিবেদক) কাছেই প্রথম শুনলাম।’

এর আগে গতকাল রোববার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে সদর উপজেলার খাগছাড়া এলাকায় মানববন্ধন করেন তারা। এ সময় তারা মাওলানা জিহাদীর বিচার দাবি করেন।

জানা গেছে, ‘আজ সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) ওয়াজ মাহফিলে অংশ নেওয়ার জন্য ৪ মাস আগে ১০ হাজার টাকা বায়না দিয়ে মাওলানা মুফতি ইলিয়াছুর রহমান জিহাদীকে আমন্ত্রণ জানায় এলাকাবাসী। কিন্তু গত ১১ ডিসেম্বর দুপুরে তিনি মুঠোফোনে জানান এই ওয়াজ মাহফিলে অংশ নিতে পারবেন না। মাওলানা মুফতি ইলিয়াছুর রহমান জিহাদীর আগমনকে ঘিরে এলাকার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং করা হয়। পাশাপাশি ব্যানার ও পোস্টার সাঁটান স্থানীয়রা।’

মাদারীপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিঞা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমাদের কাছে কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে দুপক্ষের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

এমডব্লিউ/

সর্বশেষ সব সংবাদ