196125

জম্মু-কাশ্মীরে গেরিলা হামলায় ২ পুলিশকর্মী নিহত

আওয়ার ইসলাম: জম্মু-কাশ্মীরের নওগামে গেরিলা হামলায় ২ পুলিশকর্মী নিহত হয়েছেন এবং অন্য এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

আজ (শুক্রবার) আচমকা গেরিলা হামলায় ইশফাক আইয়ুব ও ফাইয়াজ আহমেদ নামে দুই পুলিশ সদস্যকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তারা মারা যান। আহত পুলিশ সদস্য মুহাম্মাদ আশরাফের অবস্থা স্থিতিশীল বলা হচ্ছে। হতাহত ওই জওয়ানরা আইআরপি ২০ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের সদস্য ছিলেন।

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘নওগাম বাইপাসের কাছে পুলিশবাহিনীর উপরে এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ করে সন্ত্রাসীরা। এরফলে তিনজন গুরুতরভাবে আহত হন। তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে দু’জনের মৃত্যু হয়। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়েছে। হামলাকারীদের সন্ধানে সংশ্লিষ্ট এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে।’

আগামীকাল ভারতের স্বাধীনতা দিবস পালিত হবে। গোটা কাশ্মীর উপত্যকা কঠোর নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে। কিন্তু তার আগে গেরিলা হামলায় ৩ পুলিশকর্মী হতাহতের ঘটনায় চাঞ্চল্য ও উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে।

জম্মু-কাশ্মীরে গত কিছুদিন ধরে পুলিশ দল ও সেনা কনভয়ে হামলার ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ১২ আগস্ট বারামুল্লার সোপোরে নিরাপত্তা বাহিনীর উপরে হামলা করা হলে এক জওয়ান আহত হন। গেরিলারা এসময় আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ ও পুলিশের যৌথবাহিনীকে টার্গেট করে হামলা চালিয়েছিল।

গত ১ জুলাই সোপোরে সিআরপিএফ দলের উপরে গেরিলা হামলা হয়। এসময়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক জওয়ান নিহত ও ৩ জন আহত হয়েছিলেন। ওই ঘটনায় গেরিলাদের গুলিবর্ষণের মধ্যে পড়ে এক বেসামরিক ব্যক্তিও নিহত হন।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিজিপি দিলবাগ সিং গত ৩০ জুন বলেন, এপর্যন্ত ১২৮ নিহত হয়েছে। এদেরমধ্যে ৭০ জন হিজবুল মুজাহিদীন, ২০ জন করে লস্কর-ই-তাইয়্যেবা ও জৈশ-ই-মুহাম্মাদের সদস্য। বাকিরা অন্য সংগঠনের সদস্য বলে পুলিশের ডিজি দিলবাগ সিং জানান।

-এটি

Please follow and like us:
error1
Tweet 20
fb-share-icon20

ad