শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ ।। ৮ আষাঢ় ১৪৩১ ।। ১৬ জিলহজ ১৪৪৫


বৃষ্টির দিনে বইয়ের যত্ন

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
সংগৃহীত ছবি

বর্ষার এ সময় বাতাসে আর্দ্রতা বেশি থাকে।এরফলে বইয়ের ভেতরের পাতায় ভেজা ভেজা ভাব থাকে। তাই এ ঋতুতে আপনার শখের বইগুলোর দেখভালটা ঠিকঠাক হওয়া দরকার।

তাহলে জেনে নিন এসময় বইয়ের যত্নের জন্য কিছু নিয়ম সম্পর্কে-

বুক শেলফ

বইয়ের যত্নের জন্য প্রথমেই দরকার ভালো একটি শেলফ বা বইয়ের তাক যা সহজেই পরিষ্কার করা সম্ভব হয়। সবচে’ ভালো হয় যদি শেলফে কাচের দরজা থাকে। এমনটা হলে ধুলোবালি কম পড়ে আবার বইগুলো বাইরে থেকে দেখাও যায়। কাচের শেলফ না থাকলেও বই কিন্তু কখনোই দরজা বা জানালার গা ঘেঁষে রাখবেন না। এতে রোদ বা বৃষ্টির ছাঁট এসে সহজে নষ্ট করে দিতে পারে আপনার শখের বইগুলোকে। এছাড়া বইয়ের ভেতরে নিমপাতা এবং শেলফের প্রত্যেকটি তাকে ২টি করে ন্যাপথলিন বল রেখে দিন।

মুছে নিন

বই পোকা কাটে, এতে ধুলো জমে, বইয়ে দুর্গন্ধ হয় কিংবা ছিঁড়ে যায়। ধীরে ধীরে কেনা প্রিয় বইগুলোর যাতে এই অবস্থা না হয় সেজন্য মাঝে মাঝে বইগুলোকে শেলফ থেকে নামিয়ে আস্তে আস্তে সেগুলো শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে নিন। তারপর কিছুক্ষণ রোদে রাখার পর আবারো যত্ন করে তুলে রাখুন বইয়ের তাকে।

গুছিয়ে রাখুন

গাদাগাদি করে বই না রেখে বিষয় অনুযায়ী বইয়ে লেবেল লাগিয়ে গুছিয়ে রাখুন। তাছাড়া সব বই যে একদিনেই মুছতে বা পরিষ্কার করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। সময় কম থাকলে একেকদিন একেক বিষয়ের বইগুলো পরিষ্কার করুন।এর ফলে বই খুঁজে পেতেও সহজ হবে।তাছাড়া বইপ্রেমী বন্ধুদের উপহার খুঁজতেও গোছানো বুক শেলফ সাহায্য করবে আপনাকে।

পরিষ্কার হাতে বই ধরুন

খেতে খেতে বই পড়ার অভ্যাস অনেকের। এ সময় যদি বইয়ের পাতায় খাবার লেগে যায় তাহলে সেই দাগ কখনও মুছে যাবে না। এই সামান্য দাগেই পোকামাকড়, পিঁপড়ের উপদ্রব হতে পারে। তাই পরিষ্কার হাতে বইয়ের পাতা উল্টান।


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ