197402

ওয়াহিদা হত্যাচেষ্টা মামলার মূল আসামি ৭ দিনের রিমান্ডে

আওয়ার ইসলাম: দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলা মামলার মূল আসামি আসাদুলের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ রোববার দুপুরে দিনাজপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামান সরকারের আদালতে উপস্থাপন করা হয় আসাদুলকে। মামলা তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক ইমাম জাফর এসময় ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে, আদালত ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শনিবার এ মামলাটি ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের কাছ থেকে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এরপর গ্রেপ্তার দুই আসামি নবীরুল ও সান্টুকে ডিবি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই দুই আসামির ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়। রাত থেকেই তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে।

এর আগে মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন ঘোড়াঘাট থানার পরিদর্শক তদন্ত মমিনুল ইসলাম, আর এখন তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক ইমাম জাফর।

গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ইউএনও ওয়াহিদা খানমের সরকারি বাসভবনের ভেন্টিলেটর দিয়ে বাসার ভেতরে ঢুকে তার বাবাসহ তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আসামি শনাক্ত করে র‌্যাব। বুধবার রাতেই এ ঘটনায় ওয়াহিদা খানমের ভাই বাদী হয়ে ঘোড়াঘাট থানায় মামলা করেন।

এ ঘটনায় শুক্রবার ভোরে প্রথমে আসাদুল হক ও পরে নবিরুল ও সান্টু নামে মোট তিন জনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে হামলাকারীদের সহযোগী সন্দেহে আরও তিনজনকে আটক করেছে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ। এরা হচ্ছে ইউএনওর ওপর হামলার মামলার প্রধান আসামি আসাদুল ইসলামের ভাই আশরাফুল ইসলাম শাওন, ইউএনওর বাসভবনের মালি সুলতান কবির ও মামলার অন্যতম আসামি সান্টু কুমারের আত্মীয় শ্যামল কুমার।

-এটি

আপনার বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- 01640523566