194734

ইতালিতে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে বাংলাদেশিকে হত্যা

আওয়ার ইসলাম: ইতালিতে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে রশিদ হাওলাদার (৪৪) নামের এক বাংলাদেশি নাগরিককে হত্যা করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার (১৮ জুলাই) রাতে ইতালির বাণিজ্যিক রাজধানী মিলানে নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত রশিদ হাওলাদারের বাড়ি মাদারীপুর জেলায়।

এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ৬ বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করতে মাঠে নেমেছে ইতালিয়ান পুলিশ। জানা গেছে, মিলান শহরের প্রাণকেন্দ্র স্তাদেরা এলাকায় মন্তেগানি রোডে পৌর বাজারের সামনে স্থানীয় সময় রাত ৯টা ২০ মিনিটে এ ঘটনাটি ঘটে। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ৬ বাংলাদেশির একটি সংঘবদ্ধ দল হাতুড়ি ও চেইন দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে রশিদ হাওলাদারকে।

পুলিশ ও অ্যাম্বুলেন্স আসার আগেই খুনিরা দ্রুত পালিয়ে যায় ঘটনাস্থল থেকে। উদ্ধার করে স্থানীয় সান পাওলো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই মারা যান রশিদ হাওলাদার।

ইতালিয় পুলিশের সায়েন্টিফিক টিম ঘটনাস্থল থেকে হাতুড়ি ও চেইনসহ খুনিদের ফেলে যাওয়া বেশ কিছু আলামত উদ্ধার করেছে। ২ খুনিকে ইতিমধ্যে শনাক্ত করেছে পুলিশ।

সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করার পর খুনিদের ধরার চেষ্টা চলছে। নিহত বাংলাদেশির ইতালিতে বৈধ স্টে পারমিট (পেরমেসসো দি সোজ্জর্নো) ছিলো।

ইতালির মিলানে বসবাসরত প্রবাসী সাংবাদিক তুহিন মাহামুদ বলেন, নিহত রশিদ হাওলাদার স্বপরিবারে মিলান শহরে বসবাস করতেন। তার একটি ছেলেও রয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনাস্থল স্তাদেরা এলাকাটি পুলিশের খাতায় আগে থেকেই ‘ক্রাইম জোন’ হিসেবে চিহ্নিত। উত্তর আফ্রিকার অভিবাসীরা ওই এলাকায় অপকর্মের সাথে জড়িত থাকলেও হত্যাকাণ্ডের মতো জঘন্য অপরাধ করলো বাংলাদেশিরা। এটি সত্যিই বাঙালি জাতির জন্য লজ্জাজনক অধ্যায় রচিত হলো মিলানের মাটিতে।

ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার কোনো ব্যক্তব্য পাওয়া যায়নি।

-এটি

ads