শনিবার, ২৫ মে ২০২৪ ।। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ ।। ১৭ জিলকদ ১৪৪৫


চ্যাটজিপিটির কারণে বিং-এর প্রতিদিন ব্যবহারকারী ছাড়িয়েছে ১০ কোটি

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: চ্যাটজিপিটির প্রযুক্তি বিং-এর নতুন সংস্করণে যুক্ত হওয়ার পর সার্চ ইঞ্জিনটির দৈনিক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ কোটি। এ তথ্য জানিয়েছেন মাইক্রোসফটের ‘মডার্ন লাইফ, সার্চ অ্যান্ড ডিভাইসেস’ বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইউসুফ মেহদি।

ওয়েবসাইট এনগ্যাজেটের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইউসুফ মেহদি বলেন, ‘এটি যে খুব বড় কোনো সংখ্যা নয়- আমরা সে সম্পর্কে অবগত। তবে, এক সময় সেরা সার্চ ইঞ্জিন সংশ্লিষ্ট আলোচনাতেই ‘বিং’ কখনো ছিলো না। সার্চ ইঞ্জিনটির পরবর্তী প্রজন্মের সংস্করণ চালুর পর যারা আগে এটি ব্যবহার করেননি, তারাও এই সার্চ ইঞ্জিনের প্রতি ঝুঁকছেন। বর্তমানে বিংয়ের দৈনিক ব্যবহারকারীর এক তৃতীয়াংশই এই সার্চ ইঞ্জিনটিতে নতুন।’

এই অর্জনের পেছনে দুটি কারণকে কৃতিত্ব দিয়েছে মাইক্রোসফট। প্রথমটি হলো এজ ব্রাউজারের ব্যবহার বেড়ে যাওয়া। বিং- এ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবস্থা যোগ করায়ই মূলত এজ ব্রাউজারের ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়া, আরেকটি কারণ হচ্ছে- বিংয়ের সার্চ ইঞ্জিনে ‘প্রমিথিউস’ নামের এআই মডেল যোগ করা। এই মডেল যোগ করার ফলে সার্চের ইঞ্জিনের ফলাফলে তুলনামূলক প্রাসঙ্গিক উত্তর আসছে।

বিংয়ের প্রিভিউ সংস্করণ ব্যবহারকারীদের প্রায় এক তৃতীয়াংশ বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব পেতে নিয়মিত এই চ্যাটবট ব্যবহার করছেন। বিংয়ের এআই চ্যাটবট মোবাইল সংস্করণে চালু হওয়ার পর থেকে এই সার্চ ইঞ্জিনের জনপ্রিয়তা নতুন মাত্রা পেয়েছে। দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যাও বেড়েছে ছয়গুণ।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি নিজস্ব সার্চ ইঞ্জিন বিং-এ চ্যাটজিপিটি যুক্ত করার ঘোষণা দেয় মাইক্রোসফট। ফলে ইন্টারনেটে তথ্য খোঁজের পাশাপাশি বিভিন্ন কাজে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা চালিত চ্যাটবটের সাহায্য নিতে পারছেন ব্যবহারকারীরা। এ চ্যাটবটের সুবিধা থাকায় বিং সার্চ ইঞ্জিনের ব্যবহার এরই মধ্যে বেড়েছে কয়েক গুণ। তবে চ্যাটবটে অপ্রয়োজনীয় সার্চ বেশি হওয়ায় চ্যাটবটে দৈনিক একজনের জন্য প্রশ্ন সংখ্যা বেঁধে দিয়েছে মাইক্রোসফট। ফলে, একসঙ্গে ৫টির বেশি প্রশ্ন করা যাবে না বিং-এর চ্যাটবটকে।

ওয়েবসাইট সি-নেটের প্রতিবেদন অনুযায়ী, একজন ব্যবহারকারী একসঙ্গে সর্বোচ্চ ৫টি এবং দিনে সব মিলিয়ে সর্বোচ্চ মোট ৫০টি প্রশ্ন করতে পারবেন চ্যাটবটটিকে। দীর্ঘ চ্যাটিংয়ের কারণে নানা ধরনের অপ্রাসঙ্গিক প্রশ্নের উত্তর দিতে হচ্ছে চ্যাটবটটিকে। এতে অনেক সময় বিভ্রান্তিকর উত্তর দিচ্ছে এটি।

টিএ/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ