রজব মাস যেভাবে কাটাতে বলেছেন প্রিয়নবী সা.
জানুয়ারি ২৪, ২০২৩ ১২:১৬ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: বছরের ১২টি মাসের মধ্যে সম্মানিত মাস ৪টি। এর মধ্যে রজব মাসকে ‘শাহরুল্লাহ’ বা আল্লাহর মাস হিসেবেও জানে অনেকে। হাদিসে এসেছে-

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘বছরে ১২টি মাস। এরমধ্যে ৪টি মাস সম্মানিত। তিনটি মাস ধারাবাহিক; আর তা হচ্ছে- জিলক্বদ, জিলহজ ও মহররম। আর চতুর্থ মাসটি হল- রজব, যা জমাদিউল উখরা ও শাবান মাসের মর্ধবর্তী মাস।’ (বুখারি)

পবিত্র রমজানের আগমনী বার্তার জানান দেয় রজব ও শাবান মাস। এ কারণেই রমজানের পরিপূর্ণ প্রস্তুতি নিতে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রজব ও শাবান জুড়ে ইবাদত ও রোজা রেখে প্রস্তুতি নিতেন। আর বেশি বেশি একটি দোয়া পড়তেন। যাতে মুসলিম উম্মাহও তাঁর অনুসরণ-অনুকরণ করে। আর তাহলো-

اَللَّهُمَّ بَارِكْ لَنَا فِىْ رَجَبَ وَ شَعْبَانَ وَ بَلِّغْنَا رَمَضَانَ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা বারাকলানা ফি রাজাবা ওয়া শাবানা ওয়া বাল্লিগনা রামাদান।’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আপনি রজব ও শাবান মাসকে আমাদের জন্য বরকতময় করুন এবং আমাদেরকে রমজান মাস পর্যন্ত (হায়াত দিন) পৌঁছে দিন।’

যেহেতু রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রজব ও শাবান মাসে এ দোয়াটি বেশি বেশি পড়তেন। সুতরাং মুসলিম উম্মাহর জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি আমল।

উল্লেখ্য যে, ১৪৪১ হিজরি সনের রজব মাস শুরু হয়েছে বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি)। সে হিসেবে আগামী ২৬ রজব মোতাবেক ২২ মার্চ দেশব্যাপী পালিত হবে পবিত্র শবে মেরাজ।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে রজব ও শাবান মাস জুড়ে এ দোয়াটি বেশি বেশি করে পড়ার এবং আল্লাহর একান্ত অনুগ্রহ লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

কেএল/