শিরোনাম :
আধুনিক শিক্ষার সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠত অনন্য মাদরাসা মা’হাদুল কুরআন ঢাকা
অক্টোবর ২১, ২০২১ ৫:২২ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: বিজ্ঞানের চরম উৎকর্ষতার যুগে প্রযুক্তির কঠিন চ্যালেঞ্জকে মােকাবেলা করে দেশ, জাতি ও বিশ্বকে নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি ইহজাগতিক কল্যাণ ও শান্তি এবং পরকালীন মুক্তির জন্য চাই এমন একটি শিক্ষা বাবস্থা, যা হবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্বলিত ইসলামী ও নৈতিকতার সুষম সমন্বয়ে গঠিত এবং সু-চিন্তিত। বিশ্বমানের শিক্ষা কারিকুলাম অনুযায়ী পরিচালিত।

প্রকৃতপক্ষে একজন মুসলমানকে অবশ্যই কুরআনুল কারীম ও সুন্নাতে রাসূল সা. সম্পর্কে বিশদ জ্ঞান অর্জন করতে হয়। পাশাপাশি আধুনিক বিশ্বায়নের যুগে চ্যালেঞ্জ মােকাবেলায় বিজ্ঞান, শিল্পকলা, ভাষা। ও সাহিত্যে তথা সকল বিষয়েই পারদর্শী হওয়া প্রতিটি মুসলমানের জন্য অপরিহার্য।

বস্তুত, সারা জীবনই। জ্ঞান অন্বেষণ আবশ্যক হলেও জীবনের শুরুতে তথা প্রাথমিক শিক্ষার সময়েই এর মত ভিত্তি তৈরি ঝাতে হয়। কারণ, প্রাথমিক পর্যায়ে দুর্বল ভিত্তি তৈরি হলে সারা জীবনেও তা মজবুত করা সম্ভব নয়।

তাই আমাদের কোমলমতি শিশুদেরকে আল্লাহভীরু, ধার্মিক, পরহেজগার, আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি। সম্পর্কে সচেতন, আধুনিক উত্তরাধুনিক বিশ্ব নেতৃত্বের গুনাবলী সম্পন্ন প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলে। ইসলামকে সর্বশ্রেষ্ঠ এবং বিজয়ী আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার মত যােগ্য নাগরিক গড়ে তােলার প্রত্যয়। ‘মা’হাদুল কুরআন (মাদ্রাসা) ঢাকার অগ্রযাত্রা।

বিভাগসমূহ।।
পৃথক হিফজুল কুরআন বিভাগ, পৃথক বালক-বালিকা বিভাগ (প্লে-পঞ্চম শ্রেনি পর্যন্ত)

মাদরাসার বিশেষ বৈশিষ্ট্যসমূহ
প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত আল্লাহ ভীরু শিক্ষক দ্বারা শিক্ষাদান। যুগোপযােগী এবং মানসম্মত বই দ্বারা সিলেবাস সাজানাে। শ্রেণিকক্ষেই নতুন পড়া মুখস্ত করিয়ে পড়া আদায় করা। আধুনিক শিক্ষার সাথে দ্বীনি শিক্ষার অপূর্ব সমন্বয়। মাসিক পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দুর্বল মেধা যাচাই করে বিশেষ তত্ত্বাবধানে পাঠোন্নতির সুব্যবস্থা।

অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে আগত আরবীতে দুর্বল শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবর্য ঠিক রাখার জন্য। কুরআন এবং আরবী বিষয়গুলাের বিশেষ কৌচিং-এর সুব্যবস্থা। হাতে কলমে কম্পিউটার শিক্ষাদানের ব্যবস্থা। চরিত্র গঠন, পবিত্রতা ও পরিচ্ছন্নতার প্রতি বিশেষ দৃষ্টিদান। নিজস্ব তত্ত্বাবধানে প্রাথমিক সমাপনী A+ পাওয়ার নিশ্চয়তা। দিন রাত ২৪ ঘন্টা CC ক্যামেরা দ্বারা মনিটরিং এবং সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ ও নিরাপত্তার সুব্যবস্থা। Finger print ও SMS এলার্টের মাধ্যমে উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ।

বছরে তিনটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় (১ম সাময়িক, ২য় সাময়িক ও বার্ষিক)। প্রত্যেক সাময়িক। পরীক্ষার পূর্বে দুইটি মাসিক পরীক্ষা নেয়া হয়। মাসিক পরীক্ষা থেকে ১০% নম্বর নিয়ে। সাময়িক পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের সাথে যােগ করে মেধাক্রম নির্ণয় করা হয়। সাপ্তাহিক টেস্ট। পরীক্ষার মাধ্যমে দুর্বল মেধা যাচাই করে তা সমাধানের ব্যবস্থা করা হয়।

শিক্ষার্থীদের পড়ার মানােন্নয়নের লক্ষ্যে বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মাঝে ১ম, ২য় ও ৩য় প্রাপ্ত শিক্ষাথীদেরকে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

ভর্তির নিয়মাবলী মাদ্রাসার অফিস থেকে ১০০/- টাকা (অফেরৎযােগ্য) জমা দিয়ে ভর্তি ফরম ও প্রসপেক্টাস সংগ্রহ করা যাবে। প্রতি জানুয়ারী ও রমজান দুটি সেশনে ভর্তি নেয়া হয়। ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রত্যেক শ্রেণিতে ভর্তি করা হয়। ২ কপি পাসপাের্ট সাইজ ও ১ কপি স্ট্যাম্প সাইজ ছবি জমা দিতে হয়।

ভর্তির সময় অভিভাবকের ছবি, যারা শিক্ষার্থী আনা-নেয়া করবে তাদের ১ কপি করে। সর্বোচ্চ চার জনের ৪ কপিৰ জমা দিতে হয়। প্রকাশ থাকে যে, ছবি জমা দেয়া চার ব্যক্তি ছাড়া কেউ কখনও শিক্ষার্থী নিয়ে যেতে পারবে না।

আবাসিক/অনাবাসিক/ডে-কেয়ারে ছাত্র/ছাত্রী ভর্তি করা হয়। পুরাতন শিক্ষার্থী হলে। ভর্তির সময় ফলাফল প্রতিবেদন বহি সঙ্গে আনতে হবে। নতুন শিক্ষার্থীদের ভাত। পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী শ্রেণি নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। ভর্তির ক্ষেত্রে কতৃপক্ষের। সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।।

শিক্ষার্থীদের করণীয়। প্রতি সপ্তাহে নখ কেটে আসতে হবে, ছাত্ররা চুল ছােট রাখবে, মেয়েরা চুল একটু বড় করে কুটি। বাধৰে, চুলে রং করা যাবে না। ছাত্রীরা নেল পালিশ ব্যবহার করবে না, কানে বা গলায় স্বর্ণের। চেইন, রিং বা কোনাে গহনা পরে মাদরাসাতে আসতে পারবে না এবং নির্ধারিত পােশাকে। মাদ্রাসাতে প্রবেশ তে হবে।

শিক্ষার্থীদের নিষিদ্ধ সামগ্রি মােবাইল ফোন, ছুড়ি, চাক. ব্লেড, কেচি, ধারালাে ক্ষতিকারক ম্যাকানিক ইলেকট্রনিক ও । ইলেকট্রিক্যাল আসবাবপত্র রাখা সম্পূর্ণ নিষেধ।

ভর্তির জন্য যোগাযোগ- ৩২/২৬ নয়াপাড়া, দনিয়া, পোস্ট অফিস রোড ঢাকা-১২৩৬। ০১৬৩৮-২৯৮৯৫৪, ০১৬৩১-৬১০৩৮৪।

-এটি

সর্বশেষ সব সংবাদ