fbpx
           
       
           
       
শিরোনাম :
যে ৬টি দেশে সূর্য অস্ত যায় না, যেভাবে রোজা রাখেন সেখানের মুসলিমরা!
মে ০৪, ২০২১ ৫:২০ অপরাহ্ণ

আবদুল্লাহ তামিম
আন্তর্জাতিক ডেস্ক>

কল্পনা করুন যে দেশে কখনও সূর্য ডুবে না তারা কিভাবে রোজা রাখে? কেবল একটি দেশই নয়, এমন অনেক দেশ রয়েছে যেখানে সূর্য কখনও অস্ত যায় না। আল জাজিরার ভিডিও প্রতিবেদনে সে দেশগুলোর রোজা নিয়ে নানান তথ্য ওঠে এসেছে। আওয়ার ইসলামের পাঠকের জন্য সে প্রতিবেদনের অনুবাদ পেশ করছি।

বিশ্বের যে দেশগুলোতে সূর্য ডুবে না, সে দেশগুলোর রোজা সাধারণত সারা বিশ্বের অন্যান্য মুসলমানদের রোজার সময়ের চেয়ে দীর্ঘ হয়।

বিশ্বে সূর্য অস্ত না যাওয়া দেশ হিসেবে ৬টি দেশকে আমরা জানি। আমাদের জীবনের প্রতিদিন সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের মাধ্যমে অতিবাহিত হয়। কখনও কি চিন্তা করেছেন, যদি সূর্য অস্ত না যায় তাহলে রাতে ঘুমাতে পারবেন কি না? সূর্য অস্ত যাবে না এরকম চিন্তাও তো কখনও আমাদের ধারনায় আসেনি। ৫টি দেশের মধ্যে-

১. নরওয়ে
নরওয়ে’কে মধ্যরাতের সূর্যের দেশ বলা হয়। নরওয়ের অতি উচ্চতায় ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থান হবার ফলে সেখানে দীর্ঘ ঋতু ধরে দিবালোকের মত রাতেও সূর্যের আলো দেখা যায়। এই দেশে মে থেকে জুনে একটানা ৭৬ দিন পর্যন্ত সূর্য কখনও অস্ত যায় না। তবে ২০ ঘণ্টা সূর্যের আলো অনেক বেশী থাকে। বাকি ৪ ঘণ্টা সূর্য কিছুটা নিমজ্জিত অবস্থায় থাকে, তবে সম্পূর্ণ অস্ত যায় না।

২. ফিনল্যান্ড:
এদেশের বেশীরভাগ অঞ্চলে গ্রীষ্মকালে একটানা ৭৩ ঘণ্টা পর্যন্ত সূর্যাস্ত হয় না। আবার শীতকালে এদেশের নাগরিক সূর্যালোক থেকে বঞ্চিত থাকে। আর্কটিক বৃত্তের উপর মূলত এই মধ্যরাতের সূর্য দেখা যায়। এখানে যখন সূর্যোদয় হয়, তখন সূর্য আর অস্ত যেতে চায় না আবার যখন সূর্যাস্ত হয় তখন সূর্যোদয় হতে চায় না।

৩. সুইডেন:
মে মাস থেকে আগস্টের শেষ পর্যন্ত এখানে প্রায় মধ্যরাতে সূর্যাস্ত হয় আবার সকাল ৪ টার দিকে সূর্যোদয় হয়ে যায়। এখানে, ছয় মাস সূর্যোদয় এর সময় বেশী আবার বাকি ছয় মাস সূর্যাস্তের সময় বেশী।

৪. আলাস্কা:
মে এর শেষ থেকে জুলাই এর শেষ পর্যন্ত এখানে সূর্যাস্ত হয় না। আর্কটিক অক্ষের দক্ষিণে আলাস্কা শহর অবস্থিত। এটি আদর্শ সময় হতে ৫১ মিনিট পেছনে চলে।

৫. আইসল্যান্ড:
আইসল্যান্ডে কখনও সূর্য সম্পূর্ণ অস্ত যায় না। এখানে সারারাত দিগন্ত জুড়ে অনুভূমিকভাবে সূর্য পরিভ্রমণ করে। ইউরোপের এই বিশাল আইসল্যান্ড মে থেকে জুলাই পর্যন্ত অন্ধকার দেখতে পায় না। গ্রীষ্মের সময় এখানে মধ্যরাতে সূর্য অস্ত যায় এবং ভোঁর ৩টায় আবার সূর্যোদয় হয়।

৬. কানাডা:
কানাডার ইনুভিক এবং উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলগুলির মতো কিছু জায়গায় গ্রীষ্মে প্রায় ৫০ দিনের জন্য অবিরাম সূর্যের আলো দেখা যায়। দেশটি সারা বছরই তুষারে ঢাকা থাকে।

ফিনল্যান্ড একমাত্র দেশ নয় যেখানে সূর্য কখনও ডুবে না। এমন আরো কয়েকটি দেশ রয়েছে। তবে তারা সাহরি ইফতার ও রোজা রাখার বিষয়টি দিন রাতের হিসেব করে আদায় করে থাকেন। পার্শবর্তি দেশে যেখানে সূর্য ওঠে সূর্য ডুবে এর উপর ভিত্তি করেই তারা রোজা রাখেন। ইফতার করেন। সাহরি খান।

মুসলিম শরিয়া আইন বিশেষজ্ঞদের সংগঠন ইউরোপিয়ান কাউন্সিল অব ফতোয়া অ্যান্ড রিসার্চ (ইসিএফআর)। তাদের ঘোষণা অনুযায়ী এ দেশগুলোর অধিকাংশ মুসলিম পার্শবর্তি যে দেশগুলোর মধ্যে রাত দিন আছে তাদের অনুসরণ করেন। এখানকার এত দীর্ঘ দিনে রোজার অভিজ্ঞতা সশরীরে দেখে এ বিষয়ে পরামর্শ দেওয়ার জন্য সংগঠনটির মহাসচিব হুসেইন হালাওয়াকে এক রমজানে দাওয়াত দিয়ে নিয়ে আসেন কিরুনার মুসলিমরা। স্টকহোমের সময় অনুসরণ করা সম্পর্কে তিনি বলেন, এটা নিকটবর্তী শহর, যেখানে রাত আর দিন আছে। সূত্র: ইসলামি ইনফরমেশন, আল জাজিরা।

-এটি

সর্বশেষ সব সংবাদ