193443

যেমন ছিলেন শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুশ শহিদ গলমুকাপনী রহ.

মুহাম্মদ ইমদাদুল হক।।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত (২৫ জুন ‘২০) আড়াইটার দিকে সিলেটের বরেণ্য আলেম, অসংখ্য মুহাদ্দিসের উস্তাদ, প্রবীণ শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুশ শহীদ শায়খে গলমুকাপনী রাহ. নগরীর একটি বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রফীকে আ’লার ডাকে সাড়া দিয়ে চলে যান আমাদেরে ছেড়ে। ইন্না-লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রা-জিউন।

তিনি দীর্ঘদিন যাবত প্রেসার, ডায়াবেটিসসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে হযরতের বয়স ছিল ৮০ বছর। ৪ ছেলে ও ৬ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন তিনি।

শায়খ আব্দুশ শহীদ গলমুকাপনী রাহ. ১৯৪১ সালে সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার গলমুকাপন গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শিক্ষা জীবনে প্রথমে ভর্তি হন নিজ এলাকা জামেয়া দারুসসুন্নাহ গলমুকাপন মাদরাসায়। পরবর্তীতে তিনি শায়খুল হাদীস আল্লামা নূরউদ্দিন আহমদ গহরপুরী রাহ. প্রতিষ্ঠিত জামেয়া হোসাইনিয়া গহরপুর মাদ্রাসায় ভর্তি হয়ে কৃতিত্বের সাথে দাওরায়ে হাদীস উত্তীর্ণ হন।

১৩৮৪ হিজরী সন থেকে তিনি আমৃত্যু জামেয়া দারুসসুন্নাহ গলমুকাপন মাদরাসায় শিক্ষকতার মহান পেশায় যুক্ত ছিলেন। তাঁর চাচা, দীর্ঘদিনের নাযিমে আযাদ দ্বীনি এদারা শায়খুল হাদীস আল্লামা ফখরুদ্দীন রাহ.-এর ইন্তেকালের পর থেকে তিনি ওই মাদরাসার মুহতামিমের দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। দেশের শীর্ষ কুরআন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আঞ্জুমানে তা’লীমুল কুরআন বাংলাদেশের উপদেষ্টাসহ স্থানীয় অনেক সামাজিক সংগঠনেরও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন তিনি। সহজ-সরল দুনিয়াবিমুখ ছিলেন শায়খ আব্দুশ শহীদ রাহ.। জীবনভর বিতর্কের উর্ধ্বে উঠে ইসলামের সুমহান খেদমত করে গেছেন।

বি-বাড়ীয়ার বরেণ্য বুযুর্গ শায়খ নূরুল হক ধরমন্ডলী রাহ.-এর পরিবারের সাথে ছিলো হযরতের বৈবাহিক আত্মীয়তা। শায়খে গলমুকাপনী রাহ. প্রখ্যাত বুযুর্গ, কুতবে আলম শায়খ লুৎফুর রহমান বর্নভী রাহ.-এর খলিফা ও বেয়াই ছিলেন। এছাড়া সিলেটের আরেক বুযুর্গ শায়খ আব্দুল করীম কৌড়িয়া রাহ. ও শায়খুল হাদীস আল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী রাহ.-এরও বেয়াই ছিলেন তিনি।

শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুশ শহীদ গলমুকাপনী রাহ. আকাবির ও আসলাফের হাতেগড়া সংগঠন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সালে সিলেট-২ আসন থেকে দলীয় প্রতীক খেজুর গাছ নিয়ে নির্বাচনও করেছিলেন জমিয়তের প্রার্থী হিসেবে।

শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুশ শহীদ গলমুকাপনী রাহ. দারস-তাদরিসের পাশাপাশি দেশ-বিদেশে এবং গ্রামে-গঞ্জে ওয়াজ-নসিহতের মাধ্যমে আপামর জনতার মাঝে দ্বীনের প্রচার-প্রসারে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন। সদাহাস্যজ্বল, মাথায় আমামা বাধা একজন সাহসী, বিচক্ষণ আলেম হিসেবে সমাজ ও রাজনীতির ময়দানে রেখেছেন অনন্য ভূমিকা। তাঁর মৃত্যুতে সৃষ্ট শূণ্যতা পূরণ হবার নয়।

হাজার-হাজার ছাত্র, মুরিদ, মুহিব্বিন, মুতায়াল্লিকীন এবং আত্মীয়স্বজনকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে চলে গেলেন সিলেটের আলেম সমাজের উজ্জ্বল নক্ষত্র, আপামর জনতার নয়নমণি শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুশ শহীদ শায়খে গলমুকাপনী রাহ.। দেশ-বিদেশে হযরতের ইন্তেকালের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে ভক্তবৃন্দের স্রোত শুরু হয় চিরচেনা গলমুকাপনের পথে।

পিনপতন নীরবতা চলে আসে এলাকায়। অসংখ্য মানুষের চোখের পানি ঝরে দারুসসুন্নাহর মাঠে। অবশেষে হাজারো মুসল্লির উপস্থিতিতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায় জামেয়া দারুসসুন্নাহ গলমুকাপন মাদরাসা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয় নামাজে জানাযা। জানাযায় ইমামতি করেন তাঁর সুযোগ্য সাহেবজাদা হাফেজ মাওলানা মুহাম্মাদ হুসাইন।

আমাদের প্রিয় মুরব্বি, রাহবারকে আল্লাহপাক রহমতের সামিয়ানায় আবৃত করুন। জান্নাতে উঁচু মাকাম দান করুন। সবাইকে সবরে জামিল আতা ফরমান। আমীন ইয়া রাব্বাল আ’লামীন।

লেখক: সাধারণ সম্পাদক, আঞ্জুমানে তা’লীমুল কুরআন বাংলাদেশ

-এটি

ad