fbpx
           
       
           
       
শিরোনাম :
মাওলানা নূর আলম খলিল আমিনীর শূন্যতা পূরণ হবার নয়: আল্লামা আরশাদ মাদানী
মে ০৪, ২০২১ ২:০৮ অপরাহ্ণ

নুরুদ্দীন তাসলিম।।

দারুল উলুম দেওবন্দের আরবি সাহিত্য বিভাগের প্রধান মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ.-এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের প্রধান ও দারুল উলুম দেওবন্দের সদরুল মুদাররিসীন আল্লামা আরশাদ মাদানী।

আল্লামা মাদানী বলেছেন, নুর আলম খলিল আমিনী রহ.-এর ইন্তেকালে যে শূন্যতা তৈরি হয়েছে তা পূরণ হবার নয়।

শোক বার্তায় তিনি আরো বলেছেন, মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ.-কে আল্লাহ তায়ালা আরবি ভাষা ও সাহিত্যের যে যোগ্যতা দিয়েছিলেন এক্ষেত্রে তিনি অনন্য, তার দৃষ্টান্ত তিনি নিজেই।

আল্লামা আরশাদ মাদানী শোকবার্তায় বলেছেন, ‘দেওবন্দ থেকে প্রকাশিত আরবি সাময়িকী আদ-দাঈ-এর প্রাণ ছিলেন মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী। সাময়িকীটির ব্যাপক জনপ্রিয়তার পেছনে বিশেষ অবদান রয়েছে মরহুম মাওলানার বিষয় ভিত্তিক লেখা, পাণ্ডিত্যপূর্ণ সম্পাদকীয় ও দক্ষ তত্ত্বাবধানে।’

আল্লামা মাদানী মাওলানা খলিল আমিনী রহ.এর স্মৃতিচারণ করে বলেন, আল্লামা অহিদুজ্জামান কেরানী রহ.-এর খাস শাগরিদ ছিলেন তিনি। তিনি ফারেগ হওয়ার পর কিছুদিন নদওয়াতুল উলামায় খেদমত করেছিলেন, এরপর তাকে দারুল উলুম দেওবন্দে শিক্ষকতার জন্য আহ্বান করা হলে তিনি তাৎক্ষণিক দেওবন্দে চলে আসেন এবং প্রায় ৪০ বছর আরবি ভাষা সাহিত্য ও দরস-তাদরিসে সফলতার স্বাক্ষর রাখেন।

শোকবার্তায় আল্লামা মাদানী, মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ.-এর রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের জন্য সমবেদনা প্রকাশ করেন। তিনি এ সময় আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করেন যেন আল্লাহ তায়ালা দারুল উলুম দেওবন্দকে মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ.-এর মতো বিকল্প ব্যক্তিত্ব দান করেন।

প্রসঙ্গত, দারুল উলুম দেওবন্দের প্রবীণ ওস্তাদ আরবি ম্যাগাজিন আদ-দাঈ-এর চিফ এডিটর মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ. সোমবার (৩ এপ্রিল) রাত ৩ টা ১৫ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেন।

মাওলানা নুর আলম খলিল আমিনী রহ. গত ১৫ দিন যাবৎ অসুস্থ ছিলেন। তাকে অক্সিজেন লাগানো হয়েছিল, প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দুইদিন আগে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। ইন্তোলের আগের দিন দুপুর থেকে তার শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে কষ্ট হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ে। এরপর সোমবার (৩ এপ্রিল) মধ্যরাতে তিনি দেওবন্দে নিজের বিশ্রামাগারে ইন্তেকাল করেন।

মাওলানা নূর আলম খলিল আমিনী রহ. দারুল উলুম দেওবন্দে প্রায় ৪০ বছর ধরে আরবি ভাষা সাহিত্যের খেদমত আঞ্জাম দিয়ে আসছিলেন। এছাড়াও তিনি দেওবন্দ থেকে প্রকাশিত মাসিক আদ দাঈ ম্যাগাজিনের চিফ এডিটর ছিলেন।

তিনি আরবি উর্দু দুই ভাষাতেই প্রায় ১০ টির মত কিতাব লিখেছেন। তার লেখা কিতাবগুলো আহলে ইলমের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়।

তাঁর তার লিখিত বই “فلسطین في انتظار صلاح دين” (ফিলিস্তিন ফি ইন্তিজারি সালাহিদিন) আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি গবেষণার অর্ন্তভুক্ত ছিল। এছাড়া তার مفتاح العربية( মিফতাহুল আরব) বইটি বিভিন্ন মাদ্রাসায় দরস নিজামির সিলেবাসের অন্তর্ভুক্ত।

তিনি ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপালের বাইরে আরব ও ইউরোপের দেশগুলোতেও জনপ্রিয়। তার আরবি কিতাবগুলো আরব দেশের পাঠকরাও আগ্রহভরে পড়েন। বিশ্বজুড়ে তার অসংখ্য শাগরিদ রয়েছে।

মাওলানা খলিল আহমদ আমিনী রহ. বিহারের সীতামরাহী জেলার রায়পুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। ১৯৫২ সালের ১৮ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। তিনি ২০১৭ সালে প্রেসিডেন্সিয়াল সার্টিফিকেট অফ অনার লাভ করেন।

তার ইন্তেকালের খবর ছড়িয়ে পড়তেই বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের সোশ্যাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করতে দেখা গেছে নেটিজেনদের।

সূত্র: মিল্লাত টাইমস

এনটি

সর্বশেষ সব সংবাদ