fbpx
           
       
           
       
দাম্পত্য জীবনে সুখী হতে স্ত্রীকে নিয়ে ছুটির দিনে বেড়িয়ে আসুন
এপ্রিল ০৪, ২০২১ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ

তাহরিমা তাসনিম: বলা হয়ে থাকে, দাম্পত্য জীবন যদি সুখের না হয় তাহলে, আপনি কখনই সুখ পাবেন না। আর তাই, দাম্পত্য জীবন সুখময় হতে হলে স্বামীকে যেমন তার স্ত্রীকে হাসি-খুশি রাখতে হয়, তেমনি স্ত্রীরও উচিত স্বামীকে সুখে রাখা। তবে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, স্বামীদের থেকে স্ত্রীদের মন বেশি বেজায় থাকে। সাংসারিক জীবনে স্বামীদের তুলনায় স্ত্রীরা একটু বেশি মাত্রায় স্বামীর কাছ থেকে ভালবাসা পেতে চায়। আর এ জন্য, আপনার স্ত্রীকে সুখে রাখতে হলে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জেনে নিন ও সেই অনুযায়ী কাজ করুন, তাহলে দেখবেন, আপনার প্রতি আপনার স্ত্রীর ভালবাসা যেন আরও বেড়ে যাবে। তাহলে, চলুন জেনে নিই সেসব-

ছুটির দিনে আপনার স্ত্রীকে নিয়ে কাছে কোথাও বেড়িয়ে আসুন: ঘুরতে যাওয়া অর্থেই কেবল দূরে কোথাও ঘুরে আসা নয় কেবল, কাছে কোথাও ঘুরে আসা যায়। ঘুরতে সবাই পছন্দ করে। আর তাই, সপ্তাহে একদিন অন্তত আপনার স্ত্রীকে নিয়ে ঘুরে আসুন। তাহলে, তার মনটা অনেক ফ্রেস থাকবে।

আপনি লম্বা সময়ের জন্য বাহিরে থাকলে স্ত্রীকে ফোন করুন: সদ্য বিবাহিতদের মধ্যে অপেক্ষা জিনিসটি খুবই মর্মান্তিক। যদি আপনি সদ্য বিবাহিত হয়ে থাকেন আর কোন কারণে কোন কাজে আপনি লম্বা সময়ের জন্য বাহিরে থাকলে আপনার স্ত্রীকে ফোন করুন এবং তার খোঁজ খবর রাখুন, আপনার স্ত্রী খেয়েছে কিনা, কোন সমস্যা হচ্ছে কিনা। তাহলে, তার প্রতি আপনার যে ভালবাসা আছে সেটি ভেবে আপনার স্ত্রী অনেক খুশি হবেন।

অফিস বা কাজ থেকে ফিরে আসার সময় আপনার স্ত্রীর জন্য কিছু না কিছু উপহার হিসেবে নিয়ে আসুন: উপহার পেতে সবাই ভালবাসে। সেটা ছোট হোক কিংবা বড়। আর তাই, আপনি অফিস/কাজ থেকে ফেরার পথে আপনার স্ত্রীর জন্য কিছু না কিছু উপহার হিসেবে নিয়ে আসুন। আর যদি তার পছন্দের কোন জিনিস সম্পর্কে যদি আপনার ধারণা থাকে তাহলে, সেটিই নিয়ে আসুন। তারপর, দেখবেন আপনার স্ত্রীর মুখে অন্যরকম একটা হাসি ফুটে আছে।

আপনার স্ত্রীর ঘরের কাজে যতটা সম্ভব সাহায্য করুন: ঘরের কাজে ছেলে কিংবা মেয়ে নেই। সংসার যেহেতু আপনাদের দু’জনার, তাই ঘরের কাজেও যদি আপনি আপনার স্ত্রীকে সহযোগিতা করতে পারেন, তাহলে আপনার স্ত্রী অনেক খুশি হবেন।

আপনার স্ত্রীর পছন্দকে প্রাধান্য দিন: দোকানে হয়তো আপনারা দু’জন কিছু কেনাকাটা করতে গেলেন। আপনার স্ত্রীর যেটা পছন্দ, সেটা হয়তো আপনার পছন্দের নয়। কিন্তু, সেটা আপনি সরাসরি কখনও বলবেন না, যে ওটা আপনার পছন্দ হয়নি। তার চেয়ে বরং বলতে পারেন, ‘তোমার যদি এটা পছন্দ হয় তাহলে নিতে পারো, তবে, আমার কাছে এটা ভাল লেগেছিল একটু বেশি। তবে, সমস্যা নেই, তুমি তোমার পছন্দেরটাই নাও।’ তাহলে, দেখবেন, আপনার স্ত্রী তার নিজের পছন্দ থাকা স্বত্ত্বেও হয়তো আপনার পছন্দটাকে বেশি গুরুত্ব দিবে।

শেষ করার আগে, আরেকটি কথা, স্ত্রীর সাথে সবসময় ভাল ব্যবহার করবেন। অযথা কোন বিষয় নিয়ে ঝগড়া না করে দুজন দুজনের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন এবং সমাধানের পথ বের করুন। তাহলে, দুজনের সংসারটা যেমন চলবে, তেমনি দুজনের মাঝামাঝি বোঝাপড়াটাও ভাল হবে।

-কেএল

সর্বশেষ সব সংবাদ