192971

ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর মৃত্যুতে শোকে কাতর আলেমসমাজ

সুফিয়ান ফারাবী
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট>

গত ১৪ জুন বাংলাদেশের এযাবৎ কালের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও গোপালগঞ্জের সাংসদ শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ইন্তেকাল করেছেন। তার মৃত্যুতে দেশের আলেম সমাজসহ সব সাধারন জনগন শোকে কাতর। দেশের সব মহলের ওলামায়ে কেরাম তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।

সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে দেশের আলেম-ওলামাদের গুরুত্ব দেওয়া থেকে শুরু করে ধর্মীয় বিষয়াদি নিয়ে প্রজ্ঞাপূর্ণ সিদ্ধান্ত এবং ওলামায়ে কেরামদের সাথে ব্যাপক সামঞ্জস্যতায় তিনি বাংলাদেশ ধর্ম মন্ত্রণালয় দায়িত্ব পালনে এক ভিন্ন নজির স্থাপন করেছিলেন। তার মৃত্যুতে আলেমসমাজ সাংগঠনিক এবং ব্যক্তিগতভাবে শোক প্রকাশ করেছেন। তারা সকলেই শোকে মুহ্যমান।

সদ্য প্রয়াত মাননীয় ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ মোহম্মাদ আবদুল্লাহ ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামি‘আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান শাইখুল ইসলাম আল্লামা আহমদ শফিসহ হাইআতুল উলয়ার নেতৃবৃন্দ।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম গভীর শোক প্রকাশ করে তার মাগফিরাত কামনা করেছেন।

রোববার শোকবার্তায় চরমোনাইয়ের পীর বলেন, শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ কওমি মাদরাসা বোর্ডগুলোর শিক্ষা সনদের ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। সেইসাথে উলামায়ে কেরামের সাথে সবচেয়ে হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশ বজায় ছিলো। তিনি দেশের জাতীয় সঙ্কটে ওলামায়ে কেরামের সাথে পরামর্শের ভিত্তিতে ধর্মীয় বিষয়গুলোর সিদ্ধান্ত নিতেন। তিনি শিরক, বেদআত ও মাজারপূঁজারীর বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে বেদআত ও শিরকমুক্ত করতে ভূমিকা রেখেছেন। মহান রব্বুল আলামিন মরহুমের সকল ভুলত্রুটি ক্ষমা করে জান্নাতবাসী করুন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হাফেজ শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ কওমি কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, জামি’আ দ্বীনিয়া ঢাকার শাইখুল হাদীস মাওলানা আব্দুস সামাদ।

বিবৃতিতে তিনি বলেন,‘অল্প কিছু দিনের মধ্যেই তিনি মানুষের ভালোবাসা, সহানুভূতি ও দোয়া অর্জন করে নিয়েছিলেন। তিনি একজন মহৎ ও সৎকর্মশীল ছিলেন। মন্ত্রীত্বে বেশিদিন ছিলেন না; তবে এ কয়েকদিনে গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাজ তিনি করে গেছেন। বাংলাদেশে এমন ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর ইতিহাস বিরল। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে ক্ষমা করে দিন। জান্নাত নসিব করুন। যে ভালো কাজগুলো তিনি করে গিয়েছেন এর জাযা ও প্রতিদান দান করুন।

বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ মুহাম্মদ আব্দুল্লাহর ইন্তেকালে গভীর শোক ও সমবেনা জ্ঞাপন করেছেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমির শায়খুল হাদীস আল্লামা ইসমাঈল নূরপুরী ও মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক।

শোক বার্তায় নেতৃদ্বয় বলেন, মরহুম শেখ আব্দুল্লাহ উলামায়ে কেরামের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতেন এবং ধর্মীয় যে কোনো বিষয়ে আলেম উলামাদের পরামর্শ নিতেন।

নেতৃদ্বয় বলেন, তিনি বিভিন্নভাবে ইসলামের খেদমত করে গেছেন। তিনি গওহরডাঙ্গা হাফেজিয়া মাদরাসায় পড়া লেখার মাধ্যমে শিক্ষা জীবন শুরু করেন এবং সাধারণ শিক্ষায় উচ্চ ডিগ্রী অর্জন করে সমাজ ও রাষ্ট্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তার মৃত্যুতে দেশ একজন উলামাবান্ধব ও জাতীয় রাজনীতিবিদকে হারিয়েছে। যা অপূরণীয়।

গোপালগঞ্জে ধর্মবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গত রোববার আসরের পর জানাজা শেষে সদর উপজেলার কেকানিয়া গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে মা-বাবার কবরের পাশে তার লাশ দাফন করা হয়। এর আগে কেকানিয়া মাদরাসা মাঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় জনপ্রিয় প্রতিমন্ত্রীর। পরে গার্ড অব অনার প্রদান শেষে আল মারকাজুল ইসলামের প্রশিক্ষিত কর্মীরা তার দাফন সম্পন্ন করেন।

-এএ

আপনার বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- 01640523566