191894

ঈদের দিনের সুন্নাতসমূহ

ফরহাদ খান নাঈম।।

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর ঈদ যেনো দরজায় কড়া নাড়ছে। আর মাত্র কয়েক ঘন্টা পরই শুরু হতে চলেছে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। এ দিনে পালনীয় বেশ কিছু সুন্নাত রয়েছে যেগুলো জানা ও মেনে চলা অতীব জরুরি।

ঈদের দিনের কতিপয় সুন্নাত আমল-

১. ঈদের সালাতে যাওয়ার পূর্বে গোসল করে নেওয়া

আলমুয়াত্তাসহ একাধিক হাদীসগ্রন্থে উল্লিখিত হয়েছে যে, আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রা. ঈদুল ফিতরের দিন সকালে (ঈদের) সালাত আদায় করতে যাওয়ার পূর্বে গোসল করতেন। আলমুয়াত্তা: ৪২৮

২. ঈদুল ফিতরের দিন ঈদের সালাতে যাওয়ার পূর্বে কিছু খেজুর খাওয়া

আনাস বিন মালিক রা. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সা. ঈদুল ফিতরের দিন কিছু বেজোড়সংখ্যক খেজুর না খেয়ে ঈদগাহে যেতেন না। বুখারী: ৯৫৩

৩. তাকবির দেওয়া

ঈদুল ফিতরের দিন সকালে ঈদগাহে যাওয়ার সময় অনুচ্চস্বরে তাকবির বলতে বলতে যাওয়া সুন্নাত। তাকবির: আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার ওয়া লিল্লাহিল হামদ

৪. শুভেচ্ছা বিনিময় করা

ঈদের দিন একে অপরকে শুভেচ্ছা বিনিময় করা সুন্নাত। এক্ষেত্রে সুন্নাত হলো তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম বলে শুভেচ্ছা জানানো। তবে সাধারণভাবে ঈদ মোবারক কিংবা অন্য কোনো জায়েয বাক্য দ্বারাও শুভেচ্ছা জানানো যেতে পারে।

৫. উত্তম পোশাক পরিধান করা

ঈদগাহে যাওয়ার পূর্বে নিজের কাছে থাকা সর্বোত্তম পোশাক পরিধান করা ও সুগন্ধি ব্যবহার করা সুন্নাত। তবে মহিলারা সুগন্ধি মেখে সুসজ্জিত হয়ে বাইরে বের হবে না; কেননা পরপুরুষের সামনে মহিলাদের শোভা ও সৌন্দর্য প্রকাশ করা জায়েয নেই।

৬. ঈদগাহে এক রাস্তা দিয়ে যাওয়া ও অন্য রাস্তা দিয়ে ফিরে আসা

জাবির ইবনে আব্দুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সা. ঈদগাহে যাওয়া ও ফিরে আসার সময় রাস্তা পরিবর্তন করতেন। বুখারী: ৯৮৬

এছাড়া হাদিসের গ্রন্থগুলো পর্যালোচনা করলে ঈদের দিনে পালনীয় আরো অনেক সুন্নাত আমল পাওয়া যায়। মিসওয়াক করা যেগুলোর অন্যতম।

যাকাতুল ফিতর

যাকাতুল ফিতর দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার মধ্যে ঘটে যাওয়া সকল অনিচ্ছাকৃত ভুল-ভ্রান্তির কাফফারাস্বরূপ।

ছোট-বড়, নারী-পুরুষ, স্বাধীন-পরাধীন নির্বিশেষে সকল মুসলমানের উপর নির্ধারিত পরিমাণে যাকাতুল ফিতর আদায় করা আবশ্যক। ঈদের সালাতের পূর্বেই এটি আদায় করে দিতে হয়, এবং ফিতরা আদায়ের ক্ষেত্রে ঈদের সালাতের পর পর্যন্ত বিলম্ব করা জায়েয নেই।

ঈদ যেহেতু মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় উৎসব, সুতরাং নাজায়েয ও গর্হিত কোনো‌ কাজ করে এ দিনের পবিত্রতা নষ্ট করা অন্যায়।

-এটি

ad