শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ ।। ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ ।। ১৩ মহর্‌রম ১৪৪৬


হিন্দি সিনেমা দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে অস্ত্র রাখেন শিক্ষক রায়হান

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীকে গুলি করার ঘটনায় পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে অভিযুক্ত শিক্ষক রায়হান শরীফকে শুক্রবার (১৫ মার্চ) সকালে ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়। দুপুর আড়াইটার দিকে তাকে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে ডিবির পরিদর্শক জুলহাজ উদ্দীন বলেন, একজন শিক্ষক হয়েও রায়হান শরীফ কেন, কী কারণে অস্ত্র-গুলি নিজের সংগ্রহে রাখতে গেলেন, তার প্রকৃত কারণ বের করার চেষ্টা করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে রায়হান শরীফ জানিয়েছেন, ভারতের একটি হিন্দি সিনেমা দেখেই মূলত নিজের কাছে এমন অস্ত্র রাখার পরিকল্পনা করতে শুরু করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৪ মার্চ বিকেলে সাড়ে তিনটার দিকে সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজে আইটেম পরীক্ষা চলাকালে শিক্ষক রায়হান শরীফ তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে শিক্ষার্থী আরাফাত আমিন তমালকে গুলি করে। পরে আহত অবস্থায় তমালকে মনসুর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর উত্তেজিত হয়ে ওঠে শিক্ষার্থীরা।

একপর্যায়ে ওই শিক্ষককে মারপিট ও গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুলিশের হাতে হস্তান্তর করে শিক্ষার্থীরা। এসময় অস্ত্রের ব্যাগসহ কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষক রায়হানকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর রায়হান শরীফের ব্যাগ থেকে সেভেন পয়েন্ট ফাইভ সিক্স বোরের দুটি বিদেশি পিস্তল, ৮১টি গুলি, চারটি ম্যাগাজিন ও ১২টি বিদেশি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

হাআমা/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ