২০১৮-০৯-২৪

মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনাসহ ৯ এজেন্ডা নিয়ে বৈঠকে বসছে হাইআতুল উলয়া

OURISLAM24.COM
news-image

হামিম আরিফ: কওমি সনদের স্বীকৃতি ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা ও বেশ কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আগামী ১ অক্টোবর দুপুরে বৈঠকে বসবে আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ।

হাটহাজারীতে আল্লামা আহমদ শফীর সভাপতিত্বে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে। এতে ৬ বোর্ডের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত থাকবেন।

কওমি মাদরাসা কী ও কেন?

গত ১৯ অক্টোবর জাতীয় সংসদে কওমি স্বীকৃতি আইন সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়। এর পর পরই প্রধানমন্ত্রীকে আলেমদের পক্ষ থেকে গণসংবর্ধনার বিষয়টি সামনে আসে।

জানা যায়, হাইআতুল উলয়ার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনাসহ মোট ৯ টি এজেন্ডা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে চলতি বছর পরীক্ষার প্রস্তুতি ও সময় নির্ধারণ, গত ২ বছরের অর্থনৈতিক রিপোর্ট পেশ এবং অনলাইনে পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন চালুর বিষয়ে আলোচনা উল্লেখযোগ্য।

কওমি মাদরাসায় ভর্তি প্রক্রিয়া ও পরীক্ষা পদ্ধতির আধুনিকায়ন বিষয়ে ভাবছে হাইআতুল উলয়ার নেতৃবৃন্দ। এ কারণে আগামী বৈঠকে বিষয়টি গুরুত্ব পাবে বলে জানা গেছে।

তবে কবে কখন প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেয়া হবে তা নিয়ে নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি। এ বিষয়ে হাইআতুল উলয়ার দফতর সম্পাদক মুফতি ওয়াসিউর রহমান আওয়ার ইসলামকে বলেন, ৯ টি এজেন্ডা সামনে রেখে ১ অক্টোবর বৈঠকে বসবে হাইআতুল উলয়ার নেতৃবৃন্দ।

এসে গেল যাদুকরী মাদরাসা ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার

‘এতে প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনার বিষয়টিও রয়েছে। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত কোনো আলোচনা এখনো হয়নি। বৈঠকেই সিদ্ধান্ত হবে সংবর্ধনা দেয়া হবে কি না, হলে কোথায় কখন দেয়া হবে।’

দীর্ঘ বিরতির পর এ বৈঠকে হাইআতুল উলয়ার সব নেতা উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন মাওলানা ওয়াসিউর রহমান। তিনি বলেন, কওমি সনদের বিল জাতীয় সংসদে পাস হওয়ার পর এটিই হাইআতুল উলয়ার প্রথম বৈঠক। আশা করছি সবাই এতে উপস্থিত হবেন।

এর আগে ২০ অক্টোবর কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের বৈঠকেও প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনার বিষয়টি আলোচনায় আসে। নেতারা প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনার বিষয়ে সম্মত হন।

সংবর্ধনার সম্ভাব্য স্থান হিসেবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অথবা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র‘র বিষয়ে মত দেন নেতারা।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল গণভবনে এক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ ক্লাস দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান ঘোষণা করেন। এরপর ৬ বোর্ডের অধীনে মাদরাসার পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য গঠিত হয় আল হাইআতুল উলয়া। সংস্থাটির অধীনে এরই মধ্যে ২ টি কেন্দ্রীয় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা দেবে আলেমরা

আপনার ব্যবসাকে সহজ করতে এলো বিসফটি – বিস্তারিত জানুন