শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ।। ৬ বৈশাখ ১৪৩১ ।। ১০ শাওয়াল ১৪৪৫


ঈদে সড়কে চাঁদাবাজি ও অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন নিয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ফাইল ছবি

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজি কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ ছাড়া ঈদে ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তা দিতে বাস ট্রেন ও লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না বলে জানান তিনি।

আজ সোমবার বিকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে আসন্ন ঈদুল ফিতরে দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, ঈদের আগে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন-ভাতাদি পরিশোধ, সড়ক-মহাসড়ক নিরাপদ ও যানজটমুক্ত রাখাসহ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে বৈঠক করেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সড়কে যানজট নিরসনে রেলস্টেশন, বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করে মনিটর করবে এবং মহাসড়কে নির্দিষ্ট স্থানে যানজট প্রবন এলাকায় র‌্যাকার থাকবে। প্রয়োজনে ড্রোন ব্যবহার করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ঈদুল ফিতরে দেশজুড়ে আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার বিষয়ে সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রাজধানীর কূটনৈতিক পাড়াসহ সব গুরুত্বপূর্ণ স্থানে, বড় শহর ও বন্দরগুলোতে পুলিশের টহল থাকবে। রাস্তায় ও মোড়ে চেকপোস্ট স্থাপন, নৌপথে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার বিশেষ ব্যবস্থা এবং লঞ্চ, বাস টার্মিনালে অজ্ঞান পার্টি, মলম পার্টির বিরুদ্ধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সক্রিয় থাকবে।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সড়ক-মহাসড়কে চাঁদাবাজি কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। ঈদুল ফিতরের ছুটির সময় বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক, নৌপথে আকস্মিক দুর্ঘটনায় উদ্ধারকাজের জন্য ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম রেসকিউ বোট, ডুবুরিসহ ফায়ার সার্ভিস সব সরঞ্জাম নিয়ে প্রস্তুত থাকবে। প্রয়োজনে কোস্টগার্ড সঙ্গে থাকবে। শিল্প এলাকায় ফায়ার সার্ভিস কোস্ট গার্ড প্রস্তুত থাকবে।

বাস ট্রেন ও লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা যাবে না বলে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এর ব্যত্যয় ঘটলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যানজট নিরসনে রেলস্টেশন, বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করে মনিটর করবে।

এনএ/


সম্পর্কিত খবর