শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪ ।। ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ ।। ২১ শাবান ১৪৪৫

শিরোনাম :

প্রস্তুত হচ্ছে ‘জোড় ইজতেমা’ ময়দান, চলছে চূড়ান্ত প্রস্তুতি


নিউজ ডেস্ক

নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ছবি: আওয়ার ইসলাম

|| তানবিরুল হক আবিদ ||

জোড় ইজতেমার আর মাত্র ছয় দিন বাকি। চলছে শেষ দিকের প্রস্তুতি। স্বেচ্ছাশ্রমীরা পাড় করছেন ব্যস্ত সময়। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে জোড় ইজতেমার ময়দান প্রস্তুত করতে মুসল্লিরা এসেছেন, জমায়েত হয়েছেন। দিচ্ছেন স্বেচ্ছাশ্রম। 

আজ শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সকাল থেকে উত্তরার ১৫ নং সেক্টরের মেট্রোরেল স্টেশন সংলগ্ন খালি ময়দানে ছিল আওয়ার ইসলাম টিম। সূর্যের আলো ফোটার সাথে সাথে শুরু হয় স্বেচ্ছাসেবকদের কর্মতৎপরতা। জিম্মাদাররা নিজ মামুরদের কাজ বুঝিয়ে দিচ্ছেন। কেউ কোদাল, কেউ বাঁশ, কেউবা ঠেলাগাড়ি নিয়ে ছুটছে। স্কুল, কলেজ, ইউনিভারসিটি, মাদ্রাসা, শিক্ষক, ছাত্র, ইমাম, খতিব, সরকারী-বেসরকারী চাকরিজীবি, শ্রমজীবিসহ নানা পেশার মানুষের কাজে প্রস্তুত হচ্ছে বহুল প্রতীক্ষিত জোড় ময়দান। বাবা-ভাইয়ের সঙ্গে বেশ আগ্রহ নিয়ে আনন্দের সাথে কাজে করছে ছোট ছোট ছেলেরা।

জোড় ইজতেমার কাজে আগত মুসল্লিরা আওয়ার ইসলামকে জানিয়েছে, তারা এই মহান কাজে শরিক হতে পেরে নিজেদেরকে সৌভাগ্যবান মনে করছে। ইতোমধ্যে তারা মাঠের অধিকাংশ চট-সামিয়ানা, খুঁটিপোঁতাসহ নানা ধরনের কাজ সম্পন্ন করেছে। প্রস্তুত হয়েছে অজু গোসল আর ইস্তেঞ্জার জায়গা। দায়িত্বশীলদের জন্য প্রস্তুত হয়েছে দুটি টিনশেট।

ময়দান প্রস্তুত কাজে আগত একজন মাদ্রাসা শিক্ষার্থী বলেন, আমি এখানে কাজ করতে গিয়ে ব্যাথা পেয়েছি, এতে আমার কোন কষ্ট নেই। এখানে এসেছি জোড় ইজতেমাকে সফল করার লক্ষ্যে। আমার সামান্য চোটের কারনে যদি উম্মতের বিশাল মাকসাদ পূরণ হয় তাহলে তার সাওয়াবের অংশীদার আমিও হবো।

মূলত বিশ্ব ইজতেমা সফল করার লক্ষ্যে ইজতেমার বেশ কয়েক দিন আগে অনুষ্ঠিত হয় এই জোড়। এই ধারাবাহিকতা চলে আসছে বহু বছর ধরে থেকে। আগে ১০ দিন ব্যাপী জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হলেও মুরুব্বীদের পরামর্শে এখন তা কমিয়ে ৫ দিনে আনা হয়েছে।

এদিকে গত ১৬ নভেম্বর জোড় ইজতেমার ঘোষণা আসার পর থেকে উত্তরার দিয়াবাড়ি মেট্রোরেল সংলগ্ন মাঠে শুরু হয় প্রস্তুতি কাজ। এ পর্যন্ত প্রায় ৭০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে।

তাবলীগের এক মুরুব্বি জানান, এবারের জোড় ইজতেমায় তাবলীগের তিন চিল্লার সাথীদের মধ্যে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ হাজার মুসল্লী এখানে উপস্থিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, টঙ্গীর তুরাগ তীরে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম গণজমায়েত বিশ্ব ইজতেমার তারিখ নির্ধারিত হয়েছে। ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হবে ৫৭ তম বিশ্ব ইজতেমা। ইজতেমার প্রথম পর্ব ২০২৪ সালের  ২ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব  ৯ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি টঙ্গীর তুরাগ তীরে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম পর্বের ইজতেমায় আলমী শূরাপন্থী মুসল্লিরা অংশ নেবেন। তিন দিনের প্রথম পর্বের ইজতেমা শেষ হবে ৪ ফেব্রুয়ারি। ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা। চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এতে মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারী মুসল্লিরা অংশ নেবেন।

কেএল/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ