fbpx
           
       
           
       
প্রত্যেক ধর্মের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে: নৌ প্রতিমন্ত্রী
আগস্ট ১৯, ২০২২ ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: প্রত্যেক ধর্মের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলা পরিষদ মুক্তমঞ্চে শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপন উপলক্ষ্যে বিরল জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ আয়োজিত ধর্মীয় আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, প্রত্যেক ধর্মই মানবিকতার কথা বলে। ধর্ম মানুষকে একটা শৃঙ্খলার মধ্যে রাখে। মানুষকে সুন্দর জীবন ও সমাজ গড়ার ক্ষেত্রে ধর্ম পথ দেখায়। দুনিয়ায় আমরা গর্ব করে বলতে পারি, আমরা একটি মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে একটি অসাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আত্মপ্রকাশ করেছিলাম। এই অসাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গির নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এই জনপদে মুসলিম, সনাতন, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ আছেন। তিনি সবাইকে একত্রিত করেছিলেন। সবাইকে একত্রিত করা একটি অসাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গি। যেখানে রাষ্ট্র সবার জন্য থাকবে। ধর্ম যার যার; রাষ্ট্র সবার, এরকম একটি দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলাম এবং সেই মুক্তিযুদ্ধে কোন ধর্মগোষ্ঠী বা কোন বর্ণগোষ্ঠী একক কোন ভূমিকা নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ হয়নি। আমরা সব ধর্ম বর্ণের মানুষ একত্রে মুক্তি সংগ্রামে অংশগ্রহণ করে আমরা জয়যুক্ত হয়েছি।

নৌপ্রতিমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর ইতিহাসে একটি অত্যন্ত গর্ব করার মতো সংবিধান আমাদের ৭২ এর সংবিধান। যেই সংবিধানে ধর্ম নিরপেক্ষতার কথা বলা হয়েছে। মানুষের অধিকারের কথা বলা হয়েছে। যেই সংবিধানে একটি সুন্দর সমাজ ব্যবস্থার কথা বলা হয়েছে এবং এটার রূপকার হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে আমাদের অসাম্প্রদায়িক যে দৃষ্টিভঙ্গি, আমাদের যে সমধিকার, আমাদের যে এই সবার অধিকার নিশ্চিত করা, সেই দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা আবারো আলোর পথে হাটা শুরু করেছি। প্রত্যেক ধর্মের মানুষের অধিকার এখন নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রত্যেকটি ধর্মগোষ্ঠীর সমাধিকার পঞ্চদশ সংশোধনীর মধ্য দিয়ে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। কাজেই রাষ্ট্র যখন এধরনের সুন্দর চিন্তা ভাবনায় এগিয়ে যায়, তখন কিন্তু রাষ্ট্র ভালো থাকে, দেশ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যায়। নাগরিকদের জীবন মান উন্নয়ন হয়। আজকে বাংলাদেশের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প তৈরি করা হয়েছিল, আজকে ধীরে ধীরে সেগুলোকে দুর্বল করে দেয়া হয়েছে। এটাই হচ্ছে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। দেশরত্ন শেখ হাসিনা সেই দৃষ্টিভঙ্গি নিয়েই আজকে দেশ পরিচালনা করছেন।

এসআর

সর্বশেষ সব সংবাদ