fbpx
           
       
           
       
জীবনী ক্যাটাগরিতে রকমারি বেস্টসেলার এ্যাওয়ার্ড পেল ‘ক্রুসেড যুদ্ধে সুলতান সালাহুদ্দিন আইয়ুবি’
জুলাই ০৫, ২০২২ ৭:৪৭ অপরাহ্ণ

।। আদিয়াত হাসান ।।

নগদ-রকমারি বইমেলা বেস্টসেলার এ্যাওয়ার্ড-২০২২ এ জীবনী ক্যাটাগরিতে  প্রথম পুরস্কার অর্জন করেছে মাকবাতুল ইসলাম প্রকাশিত ৩ খণ্ডের অনুবাদ গ্রন্থ ‘ক্রুসেড যুদ্ধে সুলতান সালাহুদ্দিন আইয়ুবি’। ২০২১ সালের অমর একুশে বইমেলার সময় থেকে এ বছরের মার্চ পর্যন্ত রকমারি থেকে সর্বোচ্চ বিক্রীত বইয়ের লেখকদের প্রদান করা হয় এ পুরস্কার।

নিজেদের প্রকাশিত বইয়ের এমন সম্মাননা প্রসঙ্গে মাকতাবাতুল ইসলামের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান মাওলানা আহমাদ গালিব বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ! আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে আমাদের পাঠক লেখক ও শুভাকাঙ্ক্ষীগণকে জানাচ্ছি যে, আমাদের (মাকতাবাতুল ইসলাম-এর) একটি গ্রন্থ নগদ-রকমারি বইমেলা বেস্ট সেলার অ্যাওয়ার্ড ২০২২-এ জীবনী ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছে। গ্রন্থটি হলো, ৩ খণ্ডে প্রকাশিত ‘ক্রুসেড যুদ্ধে সুলতান সালাহুদ্দিন আইয়ুবি’। আমরা এ গ্রন্থের লেখক, অনুবাদক, প্রকাশকসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করছি।’

এদিকে সোমবার (৪ জুলাই) বিকেলে বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে নগদ-রকমারি বইমেলা বেস্টসেলার এ্যাওয়ার্ড-২০২২ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অর্থনীতিবিদ আকবর আলী খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, কথাসাহিত্যিক আনোয়ারা সৈয়দ হক, আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক ওসমান গনি, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ ও নগদের নির্বাহী পরিচালক শাফায়েত আলম। স্বাগত বক্তব্য দেন রকমারি ডট কমের চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান সোহাগ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশের এক বইমেলায় যত বই প্রকাশ হয় পৃথিবীর দেশে সারা বছরেও তত বই প্রকাশিত হয় না। মানের বিবেচনা ছাপিয়ে এই বিপুলসংখ্যক বই প্রকাশের মাধ্যম জাতিগত সৃজনশীলতারই প্রকাশ ঘটে। হয়ত এ কারণেই পশ্চিমবঙ্গের লেখকরা বলেন, শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশেই টিকে থাকবে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, অনলাইনে যে বই বিক্রি করা যায় সেই দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে রকমারি। প্রকাশকদের বই বিপণনের বিষয়টিকে স্বস্তিকর অবস্থানে পৌঁছে দিয়েছে রকমারি।

আকবর আলী খান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের আবশ্যিক অংশ হলো বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা। আর সেই দৃষ্টান্ত রেখে ক্রমশ সমৃদ্ধ হয়ে উঠছে দেশের সাহিত্য ভুবন।

আনোয়ারা সৈয়দ হক বলেন, লেখকদের সূতিকাগারে পরিণত হয়েছে রকমারি। খুঁজলে হারিয়ে যাওয়া বইটির সন্ধান মেলে এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে। অনলাইনে বই বিপণনের এই প্রয়াসের মাধ্যমে একইসঙ্গে সমৃদ্ধ হচ্ছে দেশ ও সমাজ।

ওসমান গনি বলেন, যেসব বই সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখে সেসব বই নিয়ে আলাদাভাবে ভাবতে হবে। তাই শুধু জনপ্রিয়তার পরিবর্তে জাতির মানস গঠনে ভূমিকা রাখা বইগুলোকে কিভাবে পুরস্কৃত করা যায় সেটি নিয়েও ভাবতে হবে।

-কেএল

সর্বশেষ সব সংবাদ