fbpx
           
       
           
       
ইসলাম ও মুসলিম: পরিচয় এবং বৈশিষ্ট্য
জুলাই ০৫, ২০২২ ১:১৫ অপরাহ্ণ

মুফতি মুহাম্মাদ ইবরাহীম খলিল: ইসলাম। শব্দটি অনেক প্রাচীন। নিজস্ব সক্রীয়তা নিয়ে বেড়ে ওঠা। এই শব্দটি আজ সর্বত্র প্রচলিত। কিন্তু দুঃখের বিষয় হল, ইসলাম বলতেই আজ অনেকে মনে করে, কেবল নামাজ, রোজা, হজ্ব, যাকাত সহ গুটিকয়েক ইবাদত-উপাসনাকে। সংকীর্ণ চিন্তায় বেড়ে ওঠা সমাজে ইসলাম সম্পর্কে ধারণা এমনই সীমাবদ্ধ।

সমাজের মানুষ ভাবে, শুধু মসজিদ-মাদ্রাসা নিয়ে পড়ে থাকাই ইসলামের কাজ। এভাবে সামগ্রিক জীবনব্যবস্থায় উপেক্ষিত ইসলাম আজ আমাদের চিন্তা চেতনায়ও ভুলভাবে চিত্রিত হচ্ছে। অথচ ইসলামের গণ্ডি এমন অপশস্থ নয়।

ইসলাম এত ক্ষুদ্র ও স্বল্পায়তনের নয়। ব্যক্তি জীবন থেকে শুরু করে পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র সহ সর্বত্রই রয়েছে ইসলামের পূর্ণ বিচরণ। সকল সমস্যার সমাধানকল্পে এক কার্যকরী সংবিধান। অর্থনীতি, সমাজনীতি, রাজনীতি, রাষ্ট্রনীতি, সমরনীতি এবং বিচারনীতি সহ সকল ক্ষেত্রেই রয়েছে ইসলামের পূর্ণ ও সাবলীল দিকনির্দেশনা। এক কথায় বলতে গেলে, মানব জীবনে চলার পথে ইসলাম হল এক পূর্ণাঙ্গ জীবনব্যবস্থা।

কিন্তু হতভাগা জাতি আজ ভুলে গেছে তাদের পরিচয়, বৈশিষ্ট্য, অধিকার, দায়িত্ব-কর্তব্য ও জীবনের মূল লক্ষ। হারাতে বসেছে ঈমানের মতো মহামূল্যবান রত্ন। আল্লাহ প্রদত্ত শরিয়া ব্যবস্থাকে ছুড়ে ফেলে মানব রচিত জীবন ব্যবস্থাকে সফলতার চাবিকাঠি বানাতে বসেছে। ফলে দুনিয়া ও আখেরাত, উভয় ক্ষেত্রে ব্যর্থতা ও বিফলতার স্বীকার হচ্ছে।

সর্বত্রই গ্লানি ও অশান্তি তাদের গ্রাস করে নিচ্ছে। প্রতিটি অঙ্গনেই বিশৃঙ্খলা ও হতাশার ছাপ স্পষ্ট রূপে ফুটে উঠছে। মানব রচিত জীবন ব্যবস্থার সংকীর্ণ পরিধি, অপূর্ণতা, কুফল ও স্বৈরাচারীতার ‘বলি’ হচ্ছে হাজারো মানুষ। গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র এবং জাতীয়তাবাদের মত মানবরচিত জীবনব্যবস্থার কুফরি ‘থাবা’ আজ সবখানেই দেখা যাচ্ছে। মানব রচিত জীবনব্যবস্থা যে, সফলতা এবং শান্তি আনতে পারেনা তা দিবালোকের ন্যায় স্পষ্ট হয়ে গেছে।

দীর্ঘদিন যাবৎ ইসলামী খেলাফত ব্যবস্থার রূপ আমাদের থেকে অনুপস্থিত থাকার কারণে কুফুরি অর্থনীতি, সমাজনীতি, রাষ্ট্রনীতি, সমরনীতি দ্বারা আমাদের চারপাশ চেয়ে গেছে। একটা সময় মুসলমানরা জ্ঞান-বিজ্ঞানেও পিছনে পড়ে যায়। আত্মপরিচয় ভুলে আত্মভোলা জাতিতে পরিণত হয়ে যায়। কিন্তু এখন আবার মুসলিমরা জেগে উঠছে। তাদের মাঝে পরিবর্তনের ছাপ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। জ্ঞান-বিজ্ঞান সহ সকল ক্ষেত্রে তারা আবার অগ্রসর হচ্ছে। ইসলামের মূল ধারা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে তারা নিয়োজিত হচ্ছে।

মানবরচিত জীবনব্যবস্থায় যারা শান্তির ঢেকুল নেয়ার চেষ্টায় লিপ্ত আছে অথবা তাতে মরিয়া হয়ে সফলতা খুঁজছে তাদেরকে বলবো, আপনারা ইসলামের মূল রূপকে দেখুন। তাকে ইহকালীন ও পরকালীন মুক্তির সংবিধান রূপে গ্রহণ করুন। তাহলে সফলতা জীবনের পরতে পরতে ছুঁয়ে যাবে।

ইসলামের সেই প্রকৃত রূপ তুলে ধরার মহান উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে আমাদের এবারের আয়োজন “ইসলাম ও মুসলিম: পরিচয় এবং বৈশিষ্ট্য” কুরআন, হাদিস এবং সালাফ-খালাফদের (পূর্ববর্তী এবং পরবর্তী ওলামায়ে কেরামদের) বক্তব্যে ইসলামের যে রূপ ফুটে উঠেছে তাই আমরা এখানে তুলে ধরবো। টেনে আনবো তার চিত্র। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে তা সুন্দর ও সাবলীল ভাষায় উপস্থাপন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

লেখক: শিক্ষক, মাদ্রাসা আশরাফুল মাদারিস, তেজকুনিপাড়া, তেজগাঁও ঢাকা

-কেএল