fbpx
           
       
           
       
এখনই পদক্ষেপ নিলে মাঙ্কিপক্স প্রতিরোধ সম্ভব: ডব্লিউএইচও
মে ২৮, ২০২২ ৯:১২ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলছে, এখনই পদক্ষেপ নিলে মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব রোধ করা সম্ভব। শুক্রবার (২৭ মে) এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন সংস্থাটির একজন শীর্ষ কর্মকর্তা। খবর রয়টার্সের।

মাঙ্কিপক্সের এই বাড়বাড়ন্তের মধ্যে শুক্রবার সংস্থার বার্ষিক সম্মেলনে ভাইরাসটির সংক্রমণ ও প্রতিরোধ নিয়ে কথা বলেন সংস্থার গ্লোবাল ইনফেকশাস হাজার্ড প্রিপেয়ার্ডনেস-এর পরিচালক সিলভি ব্রায়ান্ড। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, আমরা যদি সঠিক পদক্ষেপগুলো নিতে পারি, তাহলে এটাকে (মাঙ্কিপক্স) সহজেই রোধ করা সম্ভব।’

ব্রায়ান্ড আরও বলেন, এ ক্ষেত্রে দেশে দেশে সরকারগুলোকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে। কেমন পদক্ষেপ নিতে হবে- সে ব্যাপারে তিনি বলেন, কোন দেশের কাছে কি পরিমাণ স্মলপক্স বা গুটিবসন্তের টিকা মজুত আছে তা প্রকাশ করতে হবে।

স্মলপক্সের ফার্স্ট জেনারেশন বা প্রথম প্রজন্মের টিকা মাঙ্কিপক্সের বিরুদ্ধেও কার্যকর হতে পারে দাবি করে ব্রায়ান বলেন, আমরা ঠিক জানি না বিশ্বে এই মুহূর্তে কি পরিমাণ টিকা মজুত আছে। এজন্য আমরা বিভিন্ন দেশকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় এসে তাদের টিকা মজুতের তথ্য-উপাত্ত জমা দেয়ার জন্য উৎসাহিত করছি।

মাঙ্কিপক্স নতুন কোনো রোগ নয়। তবে এ সম্পর্কে অনেকেরই স্পষ্ট ধারণা নেই বললেই চলে।

জানা গেছে, এ রোগ নিয়ে যুক্তরাজ্যে ২০১৮ সাল থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এ পরীক্ষায় ২০২১ সাল পর্যন্ত মোট ৭ জনের মাঙ্কিপক্স শনাক্ত হয়।

এসব পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফল সম্প্রতি ল্যানসেটে প্রকাশিত হয়েছে। তাতে মাঙ্কিপক্সের চিকিৎসায় কিছু পরামর্শও দেয়া হয়েছে। এক গবেষণায় বলা হয়েছে, কিছু ‘অ্যান্টি-ভাইরাল ড্রাগ’ বা ভাইরাসপ্রতিরোধী ওষুধ রয়েছে যা মাঙ্কিপক্সের লক্ষণগুলো দূর করতে ব্যবহার করা যায়।

ওই গবেষণায় দাবি করা হয়, ভাইরাস প্রতিরোধী এসব ওষুধ প্রয়োগ করা হয়েছে। তাতে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত রোগীরা দ্রুত সুস্থ হয়েছে উঠেছেন। এক্ষেত্রে রোগীকে ‘টেকোভাইরিম্যাট বা ব্রিনসিডোফোভিরের’ মতো ভাইরাসে প্রতিরোধী ওষুধ প্রয়োগ করে কাঙিক্ষত ফল পাওয়া গেছে বলেও গবেষণায় বলা হয়েছে।

গবেষকদের মতে, মাঙ্কিপক্স সংক্রমণ নির্ণয় করা কঠিন কিছু নয়। শুধুমাত্র রক্ত ও লালা পরীক্ষা করেই শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি আছে কিনা, তা নিশ্চিত হওয়া সম্ভব।

করোনা মহামারির মধ্যেই দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ছে নতুন ভাইরাস মাঙ্কিপক্স। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২০টির বেশি দেশে বিরল এই রোগ শনাক্ত হয়েছে। সবশেষ বৃহস্পতিবার (২৬ মে) মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে।

-এএ