শিরোনাম :
পোষা বিড়ালের কী হয়েছে, জানাবে অ্যাপ
জুলাই ৩১, ২০২১ ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক: বিড়ালের মুড কী আর মানুষের বোঝার ক্ষমতা আছে? রহস্যময় এই ছোট্ট বন্ধুটি কখনোই আপনাকে বুঝতে দেবে না ওর কোনো সমস্যা হচ্ছে কিনা। দৈবিক কোনো দৃষ্টিকোণ থেকেও ওর সমস্যা বা মুড অফ করে বসে থাকার কারণ বোঝার উপায় নেই। তাই সমস্যাটা মনের না শরীরের সেটা বুঝে ওঠার আগেই দৌড়াতে হয় পশু চিকিৎসকের কাছে। এবার এই সমস্যার সমাধান বের করেছেন বিজ্ঞানীরা।

আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের মাধ্যমে বিড়ালের জন্য একটি অ্যাপ তৈরি করেছেন তারা। ‘ট্যাবলি’ নামের অ্যাপটি তৈরি করেছে ক্যালগেরিভিত্তিক সিভলেস্টার এআই। এই অ্যাপ বিড়ালের ‘ফেলিন গ্রিমেক স্কেল’ বা মুখের অঙ্গভঙ্গি বিচার করে বিড়ালের মুড কিংবা অসুস্থতা সম্পর্কে ধারণা দেবে। অ্যাপটি বিড়ালের মাথা, কান, চোখ আর শরীরের অবস্থা পরীক্ষা করে আপনাকে ফলাফল দেবে।

অ্যাপটির উদ্ভাবনী প্রতিষ্ঠান সিলভেস্টার এআই’র প্রধান মাইক প্রেইস্ট বলেন, সিলভেস্টার প্রাণীর স্বাস্থ্য ও প্রযুক্তি ভিত্তিক একটি কোম্পানি। প্রযুক্তি কীভাবে প্রাণীর সহায়তায় কাজে লাগানো যায়, এটা নিয়েই আমরা কাজ করি। ট্যাবলি এমন একটি অ্যাপ, যেটি বিড়ালের মালিককে ধারণা দেবে বিড়াল অসুস্থ কিনা বা বিড়ালের কোনো সমস্যা হচ্ছে কিনা।

অ্যাপে থাকা ক্যামেরা দিয়ে বিড়ালের মুখের একাট ছবি তুলে নিলেই এই অ্যাপ ফলাফল দেবে। অনেক সময় আপনার বিড়াল আপনার ওপরও বিরক্ত থাকতে পারে। ফেলিন গ্রিমেক স্কেল বিবেচনা করে এই অ্যাপ কাজ করে। বিড়ালের শরীরের নানা অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমেই বোঝা যায় বিড়াল সমস্যায় আছে কিনা। তাই আপনার যদি এই অ্যাপ থাকে, আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন আপনার বিড়াল কোনো সমস্যায় আছে কিনা।

No description available.

ক্যালগেরির ওয়াইল্ড রোজ ক্যাট ক্লিনিকে এই অ্যাপের ব্যবহার নিয়ে বিস্তারিত প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রাণী চিকিৎসকরা মনে করেন, এই অ্যাপ তাদের আর যারা বিড়াল পোষেন, সবার জন্যই খুব উপকারী।

ক্যালগেরির ওয়াইল্ড রোস ক্যাট ক্লিনিকের প্রাণী চিকিৎসক ড. লিজা রুলি বলেন, এটা অসাধারণ উদ্যোগ। আমি শুরু থেকেই বেশ আগ্রহ নিয়ে কাজ করছি। বিড়ালের সঙ্গে, বিড়ালের জন্য কাজ করতে আমার বেশ ভালো লাগে। ওদের আমি পাগলের মতো ভালোবাসি। এখন আমি ওদের অঙ্গভঙ্গি দেখেই বুঝতে পারি ওদের কী সমস্যা হচ্ছে? কিন্তু আমার সহকর্মী কিংবা অন্য যারা বিড়াল পালেন, তাদের জন্য বিড়ালের অবস্থা বোঝা খুব কঠিন। বিড়াল কষ্টে আছে, কিন্তু বুঝতে পারছেন না, এটা আরও বেশি কষ্ট দেয়। তাই আমরা সবাইকে অ্যাপে অভ্যস্ত হতে সাহায্য করছি।

অবশ্য এই অ্যাপ নিয়ে সমালোচনাও করেছেন অনেকে। ব্রিটিশ এক নাগরিক অভিযোগ করেছেন, নিজের ৩টা বিড়ালের জন্য এই অ্যাপ তিনি ব্যবহার করেছেন। এরমধ্যে একটা কালো বিড়াল ছিল। এই অ্যাপ ওই কালো বিড়ালের মুখ দেখে অবস্থা জানাতে অনেক বেশি দেরি করছিল। কারণ কালো রংয়ের বিড়ালের জন্য পর্যাপ্ত আলো তৈরি করতে পারছিল না ওই অ্যাপ। তাই অ্যাপে বিড়ালের ছবিও স্পষ্ট হয়ে ফুঁটে ওঠেনি।

স্বেচ্ছাসেবীরা বলছেন, এই অ্যাপ বিড়ালের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বেশ ভালো ভূমিকা রাখবে। বিড়ালের মাথা থেকে লেজ পর্যন্ত অঙ্গভঙ্গি অ্যাপের মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করলেই মালিক বুঝতে পারবেন বিড়ালেরে কী সমস্যা হচ্ছে। বিড়াল ঠিকমতো, খাচ্ছে, ঘুমাছে। তাহলে সমস্যাটা কোথায়? এই অ্যাপের মাধ্যমে জানতে পারবেন বিড়াল কেন রেগে আছে, কেন লুকিয়ে থাকতে চাইছে। পোষা প্রাণীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় তাই আর কোনো চিন্তা নেই।

সূত্র: রয়টার্স

এনটি

সর্বশেষ সব সংবাদ