fbpx
           
       
           
       
শিরোনাম :
কেন সবাই বিয়ে করে? এটা একটা পার্টনারশিপও তো হতে পারে: মালালা ইউসুফজাই
জুন ০৫, ২০২১ ৭:৩৩ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মী ও শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই বিয়ে প্রসঙ্গে একটি প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘আমি একটা ব্যাপার বুঝতে পারি না, কেন সবাই বিয়ে করে? জীবনসঙ্গীকে বেছে নিতে হলে, কাগজে সই করার দরকার কী? এটা একটা পার্টনারশিপও তো হতে পারে।’

মাত্র ১৭ বছর বয়সে বিশ্বের সবচেয়ে কমবয়সী হিসেবে শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ব্রিটেনের বিখ্যাত ফ্যাশন ম্যাগাজিন ভোগ-এর প্রচ্ছদ তারকা হিসেবে স্থান পেয়েছেন। তিনি ম্যাগাজিনটির সঙ্গে ব্যক্তিজীবন, বিশ্বাস, পড়াশোনা, টুইটারে কর্মকাণ্ড এবং অ্যাপলটিভি প্লাসের সঙ্গে তার নতুন অংশীদারিত্ব নিয়ে বেশ খোলামেলা সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি।

সেখানেই তিনি এ মন্তব্য করেন। তার ওই সাক্ষাৎকার নিয়েই নেট দুনিয়া সরগরম। সাক্ষাৎকারে বিয়ে প্রসঙ্গে মালালার কথায় নানা প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে। এমনকি, কেউ কেউ তার কথাকে ‘ইসলামবিরোধী’ বলেও মন্তব্য করেছেন। তার মন্তব্যে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই এ মতটির সমালোচনা করেছেন।

আরও অনেক বিষয় নিয়েই খোলা মনে নিজের মনের কথা জানিয়েছেন মালালা। এর মধ্যে রয়েছে হিজাব পরার প্রসঙ্গও। যে বিষয়ে মালালা বলেন, ‘এটা আমাদের সংস্কৃতিক প্রতীক। এই পোশাক বুঝিয়ে দেয়, আমি কোথা থেকে এসেছি। আমরা মুসলিম মেয়েরা, পাকিস্তানি মেয়েরা কিংবা পাখতুনের মেয়েরা এটাকে আমাদের পরম্পরা বলেই মানি।’

মামলা ইউসুফজাই মাথায় জড়ানো ওড়নাকে পাকিস্তানের সুন্নি মুসলিম নৃ-গোষ্ঠী ‘পশতুন’ সংস্কৃতির প্রতীক হিসেবে অভিহিত করেছেন স্বাক্ষাৎকারে। অক্সফোর্ড পড়ুয়া এই পাকিস্তানি নারীশিক্ষা কর্মী পশুতুন নৃ-গোষ্ঠীর সদস্য।

ভোগ ম্যাগাজিনের নতুন প্রচ্ছদে জায়গা পাওয়ায় ‘উচ্ছ্বসিত এবং সম্মানিত’ বলে ইনস্টাগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে জানিয়েছেন মালালা। লিখেছেন, আমি আশা করছি, প্রত্যেক কিশোরী যারা এই প্রচ্ছদ দেখবে তারা জানবে যে- প্রত্যেকেই এই বিশ্ব বদলাতে পারে।

এমডব্লিউ/

সর্বশেষ সব সংবাদ