fbpx
           
       
           
       
শিরোনাম :
আপন বোনের নাতনিকে বিয়ে করা বিষয়ে ইসলামের হুকুম
ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২১ ৩:২৩ অপরাহ্ণ

প্রশ্ন: মুহতারাম মুফতি সাহেব! আপন বোনের নাতনি অর্থাৎ আপন ভাগনির মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি না? না হলে কেন নয়? দয়া করে জানাবেন।
নিবেদক
মুহাম্মদ দেলাওয়ার হোসেন
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা

জবাব: আপন বোনের নাতনি অর্থাৎ আপন ভাগ্নীর মেয়েকে বিয়ে করা জায়েয নেই। পবিত্র কুরআনে যে সব মেয়েদের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া হারাম ঘোষণা করা হয়েছে তাদের মধ্যে ভাগ্নী ও তার মেয়ে তথা বোনের বংশানুক্রমিক সকল অধস্তন মেয়েও অন্তর্ভূক্ত। তাই ভাগ্নীর মেয়েকে বিয়ে করা হারাম। কুরআনে আল্লাহ তাআলা বলেন, তোমাদের প্রতি হারাম করা হয়েছে তোমাদের মা, তোমাদের মেয়ে, তোমাদের বোন, তোমাদের ফুফু, তোমাদের খালা, তোমাদের ভাইর মেয়ে, তোমাদের বোনের মেয়ে…(সুরা নিসা:২৩)

আর আয়াতে যদিও ভাগ্নীর মেয়ের কথা উল্লেখ নেই কিন্তু ভাগ্নীর মেয়ে হারাম হওয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে শরীয়তের বিশেষ মূলনীতি ও উম্মাহর সকল ইমামগণের ঐকমত্য সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে। কারণ শরীয়তের মূলনীতি হচ্ছে, কুরআনের নস তথা হুকুম কখনো অর্থবোধকভাবে প্রমাণিত হয় যাকে উসুলবীদদের পরিভাষায় দালালাতুন নস (دلالة النص) বলে। উল্লেখিত আয়াতে ‘তোমাদের বোনের মেয়ে’ এ হুকুমটি ব্যাপকাত্মক। তাই মেয়ে বলতে বোনের মেয়ের সাথে সাথে তার অধস্তন সকল মেয়েরাও (‘মেয়ে’ অর্থের কারণে) অন্তর্ভূক্ত হবে।

এ বিষয়টিকে ফকীহগণ এভাবেই ব্যক্ত করেছেন যে, কোন ব্যক্তির জন্য তার উর্ধ্বতন আত্মীয় (أصله) তথা বাবা/মা ও অধস্তন আত্মীয় (فرعه) তথা ছেলে/মেয়ে (আবার তাদের সন্তানাদী, এভাবে নিচের দিকে সবাই) যেমন হারাম, ঠিক তেমনি উর্ধ্বতন আত্মীয়ের নিচের দিকের আত্মীয় (فرع أصله القريب) তথা ভাই/বোন এবং নিকট উর্ধ্বতনের অধস্তন আত্মীয় (والفرع القريب للأصل البعيد) তথা দাদার ছেলে/মেয়ে অর্থাৎ চাচা/ফুফি ইত্যাদিও ব্যক্তির জন্য হারাম। তাই কুরআন হাদীস উৎসারিত ফুকাহায়ে কেরামের উক্ত মূলনীতি অনুযায়ী বোনের মেয়ে অর্থাৎ ভাগ্নী এবং তার মেয়ে অর্থাৎ নাতনীকে বিয়ে করা হারাম সাব্যস্ত হয়।

المراجع والمصادر:
(১) القرآن الكريم، سورة النساء: ২৩
{حُرِّمَتْ عَلَيْكُمْ أُمَّهَاتُكُمْ وَبَنَاتُكُمْ وَأَخَوَاتُكُمْ وَعَمَّاتُكُمْ وَخَالَاتُكُمْ وَبَنَاتُ الْأَخِ وَبَنَاتُ الْأُخْتِ… إِنَّ اللَّهَ كَانَ غَفُورًا رَحِيمًا}.
(২) التفسير المظهرى ২/৫২
وبنات الأخ وبنات الأخت يعنى فروع الأخ والأخت بناتهما وبنات أبنائهما وبنات بناتهما وإن سفلن سواء كان الأخ والأخت لأبوين أو لأحدهما، ذكرالله سبحانه المحرمات من النسب سبعا، ويؤول أمرهن إلى أربعة أصناف أصله، وفرعه، وفرع أصله القريب وإن بعد، والفرع القريب للأصل البعيد…
(৩) بدائع الصنائع ২/৫৩০ زكريا،
وتحرم بنات بناته وبنات أبنائه وإن سفلن بدلالة النص؛ لأنهن أقرب من بنات الأخ وبنات الأخت ومن الأخوات أيضا؛ لأن الأخوات أولاد أبيه وهن أولاد أولاده فكان ذكر الحرمة هناك ذكرا للحرمة ههنا دلالة وعليه إجماع الأمة أيضا،
(৪) الفتاوى الهندية১/৩৩৯ زكريا،
(৫) روح المعانى ৪/৬৩৫، دار الحديث.
(৬) فتاوی محمودیہ :১৬/৪৩৬
نواسی سے نکاح۔ جس طرح اپنی حقیقی بہن سے نکاح حرام ہے، اسی طرح حقیقی بہن کی لڑکی اور اس لڑکی کی لڑکی سے بھی حرام ہے۔

উত্তর লিখনে
মুফতি আবুল ফাতাহ কাসেমি
উস্তাদ, জামিয়া কারীমিয়া আরাবিয়া রামপুরা, ঢাকা।

-এএ

সর্বশেষ সব সংবাদ