146283

স্বাধীনতার ৪৮তম বর্ষপূর্তিতে কাতারে আলনূরের মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত

আওয়ার ইসলাম: স্বাধীনতার ৪৮তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে কাতারে আয়োজিত আলনূর ইসলামী মহাসম্মেলনে বক্তাগণ বলেন, পাশ্চাত্যে ইসলাম এক অগ্রসমান ধর্ম। কুরআন নির্দেশিত জ্ঞান প্রজ্ঞা ও দাওয়াহ্ মূলনীতি অনুসরণ করে দুনিয়াজুড়ে ইসলামের সৌরভ ছড়িয়ে দেয়া সময়ের দাবী।

নতুন প্রজন্মের মাঝে ইসলামী চেতনা ও মানব প্রেম জাগিয়ে তোলার জন্য আদর্শ শিক্ষা ও সুস্থ সংস্কৃতি বিকাশের বিকল্প নেই।

আলনূর কালচারাল সেন্টারের উদ্যোগে ২২ মার্চ দোহার বিন যাইদ সেন্টার মিলনায়তনে সালেহ নূরের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন আলনূর নির্বাহী পরিচালক হাফেজ মাওলানা ইউসুফ নূর।

এতে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন কাতারস্থ বাংলাদেশ দুতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর ড. মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান।

প্রধান বক্তা ছিলেন আলনূর কালচারাল সেন্টার যুক্তরাষ্ট্র শাখার নির্বাহী পরিচালক মুফতি মুহাম্মদ ইসমাইল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাতার নিউজ এজেন্সির চীফ এডিটর খালেদ আল যিয়ারাহ, বাংলাদেশ স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালক লে.ক. আনোয়ার খুরশিদ (অব), প্রখ্যাত লেখক ও প্রকৌশলী ড.আবদুল্লাহ আল মামুন, কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড.ইসরাত হোসাইন। আলোচনায় অংশ নেন মুফতি আহসান উল্লাহ, মুফতি নূর হোসেন, মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমান, মাওলানা জসিমউদ্দিন মাশরুফ।

কুরআন তেলাওয়াত করেন মাওলানা নুরুল আমীন ও হাফেজ মাওলানা ইসহাক। ইসলামী সংগীত পরিবেশন করেন মুহাম্মদ সাইদুল হক।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী আলীম উদ্দীন, জসিম উদ্দিন, পেয়ার মুহাম্মদ, বশর সরকার ও প্রকৌশলী সালাহ উদ্দিন।

সম্মেলন উপলক্ষে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহর প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন শফিকুল ইসলাম প্রধান। কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজনে ছিলেন প্রকৌশলী মুনিরুল হক, প্রকৌশলী বুলবুল আহমদ, অধ্যাপক আবু শামা, মতিউর রহমান ভুঁইয়া।

মহিলা কর্ণারে বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউইয়র্ক আলনূর সেন্টারের ধর্মীয় শিক্ষক মুহতারামা ফাতেমা আবদুল্লাহ।

প্রধান অতিথি ড. মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান বলেন,ধর্মীয় শিক্ষা ছাড়া নৈতিকতার উন্নয়ন ও আদর্শ জীবন গঠন সম্ভব নয় । প্রবাসী সন্তানদের মাঝে দেশপ্রেম ও ইসলামী শিক্ষার বিস্তারে আলনূর সেন্টারের মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। বিপুল শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে প্রাণবন্ত ইসলামী কুইজ প্রতিযোগীতার সফলতা কামনা করি।কমিউনিটির জন্য কল্যাণকর প্রতিটি মহৎ কাজে বাংলাদেশ দূতাবাস সহযোগীতা করে যাবে।

প্রধান আলোচক মুফতি মুহাম্মদ ইসমাইল বলেন, বিশ্বব্যাপী চিন্তাধারার আলোকে আপন ভূবনে কাজ করে যেতে হবে। পরিবারের প্রতি সর্বোচ্চ যত্নবান হতে হবে। পরিবর্তনের সূচনা হতে হবে নিজের থেকে। মহানবী (সা: ) ও প্রবাসী ছিলেন। তাঁর আদর্শ অনুসরণে প্রত্যেক প্রবাসীর জীবন হবে অর্থপূর্ণ ও অবদানময়।

খালেদ আল যিয়ারাহ বলেন, বাংলাদেশীদের ইসলাম প্রেম আমাদের অনুপ্রাণিত করে।

সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা ইউসুফ নূর শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সমাজকল্যাণ বিষয়ে আলনূর সেন্টারের পাশে থাকার জন্য কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।

অনুষ্ঠান শেষে ইসলামী কুইজ প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়। আরবী, ইংরেজি ও বাংলা ভাষায় আয়োজিত এ প্রতিযোগিতায় প্রায় ৪০০ ছাত্র ছাত্রী অংশ নেয়।

আরআর

ad

পাঠকের মতামত

One response to “শ্রীলঙ্কায় দুই বাংলাদেশির খোঁজ মিলছে না”

  1. EdwardvuH says:

    Вся информация о гипнозе, гипнотерапиия, а также обучение техникам тут – https://www.hypnolife.ru/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *