146345

বাক্সভর্তি নৌকার সিল, নেই কারো স্বাক্ষর

আওয়ার ইসলাম: ভোট গণনা সময় ২০০টি ব্যালট পেপার পাওয়া গিয়েছে যেগুলোতে নৌকায় সিল মারা থাকলেও নেই কারো স্বাক্ষর। এ ঘটনায় মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার একটি কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন।

এ অবস্থায় ভোট গণনা স্থগিত করে মালামাল নির্বাচন কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারিহা তানজিম মীম।

জানা যায়, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় দফায় রোববার নির্বাচন ছিল জেলার রাজৈর ও কালকিনি উপজেলায়। রোববার বিকেলে ভোট গণনার সময় রাজৈর উপজেলার হরিদাসদি মাহেন্দ্রদি ইউনিয়নের ১০নং বাটিয়াকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে অতিরিক্ত ব্যালট বোঝাই বাক্স দেখতে পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হাজী মহসিন মিয়া অনিয়মের অভিযোগ আনেন।

তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে আসেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারিহা তানজিম মীম। এরপর আসেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহা. মনিরুজ্জামান। তারা দীর্ঘসময় তদন্ত করে ওই ব্যালট বাক্সে ২০০ সিলযুক্ত স্বাক্ষরবিহীন ব্যালট পেপার দেখতে পান এবং তাৎক্ষণিকভাবে এ ভোটকেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেন।

প্রিসাইডিং কর্মকর্তা প্রেমানন্দ গাইনের সহযোগিতায় সিলগুলো নৌকা মার্কায় মারা হয়েছিল বলে অভিযোগ করেন বিদ্রোহী প্রার্থী হাজী মহসিন মিয়া।

এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারিহা তানজিম মীম বলেন, আনারস প্রতীকের প্রার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা দুই বান্ডেল সিলযুক্ত ব্যালট পেপার পেয়েছি। সেগুলোতে কোনো স্বাক্ষর ছিল না। তবে সিল ছিল। তাই অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহা. মনিরুজ্জামান বলেন, প্রিসাইডিং কর্মকর্তা প্রেমানন্দ গাইনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তার সহযোগিতায় নৌকায় সিল মারা হয়েছিল।

-এএ

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *