145689

রাজধানীর যেসব রুটে চলবে চক্রাকার বাসে

আওয়ার ইসলাম:  ঢাকা রাজধানীর সড়কের যানজট নিরসনের লক্ষে এবং সড়কের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে নানামুখী পদক্ষেপের অংশ হিসেবে আগামী ২৬ মার্চ থেকে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছে সরকার।

রাজধানীর ব্যস্ততম এলাকা ধানমণ্ডি, নিউমার্কেট ও আজিমপুর রুটে চলবে এ চক্রাকার বাস।

চক্রাকার বাসগুলো চলবে আজিমপুর হয়ে নিউমার্কেট, সাইন্সল্যাব, ধানমণ্ডি ২নং রোড, সাত মসজিদ রোড, ধানমণ্ডি ২৭, সোবহানবাগ, রাসেল স্কয়ার, কলাবাগান, ধানমণ্ডি ৬ নং রোড, ৩নং রোড, সাইন্সল্যাব, নিউমার্কেট, আজিমপুর, পলাশী, নীলক্ষেত, কাঁটাবন, বাটা ক্রসিং, সাইন্সল্যাব এবং ধানমণ্ডি ২ নং রোড হয়ে সাত মসজিদ।

অন্যদিকে সোবহানবাগ হয়ে রাসেল স্কয়ার দিয়ে কলাবাগান, ধানমণ্ডি ৬ নং রোড ক্রসিং, ৩ নং রোড ক্রসিং, সাইন্সল্যাব, টাক্রসিং, কাঁটাবন, নীলক্ষেত, পলাশী, আজিমপুর, নিউমার্কেট, সাইন্সল্যাব, ৩নং রোড, ৬নং রোড ক্রসিং, কলাবাগান, সোবহানবাগ, ধানমণ্ডি ২৭ নং রোড পূর্ব মাথা, সাত মসজিদ রোড, বিজিবি, ধানমণ্ডি ২ নং রোড, ৩নং রোড ইউটার্ন, সাইন্সল্যাব, টা ক্রসিং, কাটাবন, নীলক্ষেত, পলাশী এবং আজিমপুর হয়ে নিউমার্কেট।

এই চক্রাকার বাসের জন্য থাকবে ৩৬টি স্টপেজ। বাসগুলো আপ এবং ডাউনে যেসকল জায়গায় স্টপেজ থাকবে তাতে দেখা গেছে কাঁটাবন-নীলক্ষেত রাস্তার এলইডি সাইনের সামনে এবং বিপরীত পাশে স্টপেজ রয়েছে।

নীলক্ষেত-পলাশী রুটেও স্টপেজ থাকবে। মিরপুর রোডের নিউমার্কেট-সাইন্সল্যাবগামী বাস থামবে নিউমার্কেট বাস বেতে।

অন্যদিকে সাইন্সল্যাব হয়ে নিউমার্কেট যে বাসটি যাবে সেটি থামবে বলাকা সিনেমা হলের সামনে, ঢাকা কলেজ-সাইন্সল্যাব রোডে যে বাসটি চলবে সেটি থামবে টিসার্চ ট্রেনিং কলেজের সামনে। এছাড়া সাইন্সল্যাব-ঢাকা কলেজগামী বাস থামবে জনতা ব্যাংকের সামনে।

আরও বাস স্টপেজ থাকছে পপুলারের পশ্চিমে, সিটি কলেজের পশ্চিমে, ব্যাংক এশিয়ার সামনে, সীমান্ত ব্যাংক যাত্রী ছাউনি, ইউল্যাব’র সামনে, মেডিনোভার সামনে, কেয়ারী প্লাজ, আলমাসের সামনে।

শংকর বাস স্ট্যান্ড, ৫২ নং বাসার সামনে, কবি নজরুল ইন্সটিটিউট ইন্টারসেকশনের সামনে, সোবহানবাগ দ্বীন মোহাম্মদ হাসপাতালের সামনে, প্রিন্স প্লাজা ও হোসেন প্লাজার সামনে, কলাবাগান মাঠের বিপরীতে।

কলাবাগান মাঠের পাশে, ধানমন্ডি ৮ নং রোড মাঠের বিপরীতে ল্যাবএইডের সামনে, ল্যাবএইডের বিপরীতে, সাইন্সল্যাব গেটের সামনে, আল আরাফা ইসলামী ব্যাংকের সামনে আজিমপুর মোর এবং পলাশী মোরে।

এই রুটে পর্যায়ক্রমে রিকশা তুলে দেওয়ার পক্ষে মত দিয়েছে ট্রাফিক বিভাগ। তবে রিকশাগুলো গলির ভেতরের রাস্তায় চলতে পারবে। সেক্ষেত্রে তাদেরকেও গুলশান-বনানীর মতো নির্দিষ্ট পোশাকে রিকশা চালাতে হবে।

বুধবার (২০ মার্চ) দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সভাকক্ষে মেয়র সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে বাস রুট রেশনালাইজেশনকল্পে গঠিত কমিটির চতুর্থ সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গঠিত কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিটি স্টপেজে ৫ মিনিট পর পর বাস থাকবে। যাত্রী পরিপূর্ণ না হলেও বাসটিকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাউন্টার ছেড়ে যেতে হবে।

তবে এই রুটে বর্তমানে চলাচলকারী বাসগুলো দ্রুততম সময়ের মধ্যে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব সম্মতি দিয়েছেন চক্রাকার বাস সার্ভিসে তাদের কোনো বাস থাকবে না। এগুলো রুট পরিবর্তন করে দেওয়া হবে।

এই চক্রাকার বাস সার্ভিসে র‌্যাপিড পাস ব্যবহারের ওপর জোর দিয়েছে কমিটি। বিশেষ করে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, ‘প্রথম দিন থেকেই র‌্যাপিড পাস সিস্টেম চালু করতে হবে।’

আরএম/

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *