fbpx
           
       
           
       
কবিতা-সংগীত অন্যায় ও বর্বরতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের হাতিয়ার
জুন ২১, ২০১৬ ৪:২৫ অপরাহ্ণ

muhib khan

মুহিববুর রহমান খান (মুহিব খান)। বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় কবি, শিল্পী, সাংবাদিক, কলামিস্ট, টিভি আলোচক ও উপস্থাপক। একজন উদারপন্থী ইসলামি চিন্তাবিদ এবং প্রগতিশীল রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবেও তিনি দলমত নির্বিশেষে সর্বমহলে সমাদৃত।

তার কবিতা ও সংগীত দেশপ্রেম, মানবতাবাদ, বিশ্ব-শান্তি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও জাতীয় সংহতির চেতনায় জাতিকে উদ্বুদ্ধ করে। বাংলাদেশের বিপুল জননন্দিত জাতীয় সংগীত শিল্পীদের অনেকেই গনমাধ্যমে তার লেখা দেশের গান পরিবেশন করেছেন। তাদের মধ্যে- সুবীর নন্দী, আবিদা সুলতানা, শাকিলা জাফর, আইয়ুব বাচ্চু, হায়দার হোসেন, কনক চাঁপা, মনির খান, মমতাজ, আগুন, শুভ্রদেব, ফাহমিদা নবী প্রমুখ অন্যতম।

তিনি নিজেও গনমাধ্যমে দেশাত্মবোধক ও আদর্শিক গান গেয়ে কোটি মানুষের হৃদয় জয় করেছেন। দেশে ও বিদেশে তার প্রতিটি কনসার্টে শ্রোতাদের স্বতস্ফুর্ত উচ্ছাস ও ব্যাপক জনসমাগম পরিলক্ষিত হয়। বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর জন্য উদ্দীপনা সংগীত ‘ইঞ্চি ইঞ্চি মাটি’ এবং রাষ্ট্রীয় আইন শৃংখলা রক্ষী বাহিনী বাংলাদেশ আনসার-ভিডিপির দলীয় সংগীতের রচয়িতা ও সুরকার তিনিই।

এ যাবত তাঁর বেশকিছু অডিও ভিডিও এ্যালবাম এবং সাহিত্য ও দর্শনের বই প্রকাশিত হয়েছে। আরও কিছু বই ও এ্যালবাম প্রকাশের পথে। এছাড়াও জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে অনেক প্রবন্ধ ও কলাম।

তার রচিত ঐতিহাসিক অনুবাদ সাহিত্য ‘আল-কোরআনের কাব্যনুবাদ’ এবং বিস্ময়কর সিরাত এ্যালবাম ‘দাস্তান-ই-মুহাম্মদ’ বাংলা সাহিত্য সংস্কৃতির অন্যতম সৃষ্টি।

দেশে ও দেশের বাইরে তিনি ‘জাগ্রত কবি’ উপাধিতে সমাদৃত। পূর্ব লন্ডনে আয়োজিত এক গণসংর্বধনায় তাকে ‘মুসলিম উম্মাহর জাতীয় কবি’ উপাধিতেও ভূষিত করা হয়। তার ভক্ত ও শুভানুধ্যায়ীরা তাকে একজন আধুনিক আলেম, দার্শনিক ও রাষ্ট্রচিন্তাবিদ হিসেবে মূল্যায়ন করে থাকেন।

শিক্ষা জীবনে তিনি ইসলামিক স্টাডিস এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। বর্তমানে তিনি ইতিহাস দর্শন সংস্কৃতি ও ধর্মতত্ত্ব বিষয়ে ব্যক্তিগত পর্যায়ে উচ্চতর গবেষণায় রত আছেন।

তার পিতা দেশ বরেণ্য ইসলামী চিন্তাবিদ ও শিক্ষাবিদ মাওলানা আতাউর রহমান খান ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সম্মানিত সদস্য। তার পরিবারের অন্য সদস্যরাও শিক্ষা সাহিত্য ধর্ম ও সংস্কৃতির ধারায় নিজ নিজ অবস্থানে সমুজ্জল।

সাহিত্য-সংস্কৃতি, রাজনীতি, বিশ্ব পরিস্থিতি, ইসলাম ও মুসলিম বিশ্ব নিয়ে আমরা কথা বলেছি তার সঙ্গে-

* আপনার কবিতা ও সংগীত দেশে ও বিদেশে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয় হয়ে ওঠার কারণ কী বলে আপনি মনে করেন?

** আমি আমার কবিতা ও সংগীতে বিশ্বের ভালো মানুষদের হৃদয়ের কথা বলি। আমি সত্য ও সুন্দরের কথা বলি। দেশপ্রেম, জাতীয় সংহতি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, অর্থনৈতিক মুক্তি, রাজনৈতিক সংস্কার, চারিত্রিক উৎকর্ষ ও সাংস্কৃতিক পরিশুদ্ধির কথা বলি। অসহায় নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষের পক্ষে বলি। ন্যায় ও ইনসাফের পক্ষে বলি। এ সবকিছুই বিশ্ব মানবতার কল্যাণের জন্য অপরিহার্য । এ সবকিছুই ভালো মানুষদের একান্ত কাম্য।

* আমরা জানি আপনার কিছু কবিতা ও সংগীত জাতীয় পর্যায়ে সমাদৃত হয়েছে এবং গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রচারিত ও বিপুল দর্শকনন্দিত হয়েছে। কবিতা ও সংগীত নিয়ে আপনার স্বপ্ন ও পরিকল্পনা জানতে পারি কী?

** আমি প্রমাণ করতে চাই- কবিতা ও সংগীত শুধুই চিত্তবিনোদনের খোরাক নয় বরং সত্য ও মানবতার পক্ষে, অন্যায় ও বর্বরতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের হাতিয়ারও। আমি এর মাধ্যমে পৃথিবীতে শান্তি সম্প্রীতি রক্ষায় অবদান রাখতে চাই। সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করতে চাই। দারিদ্র, দুর্নীতি, অন্যায় ও সন্ত্রাসবাদকে রুখতে চাই। শিল্প সাহিত্য ও সংস্কৃতির প্রকৃত উদ্দেশ্য এমনটিই হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

* কবি হওয়ার পাশাপাশি একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে বাংলাদেশের চলমান অস্থিতিশীল রাজনীতি ও বিশ্ব রাজনীতির উত্তপ্ত পরিস্থিতি সম্পর্কে আপনার অভিমত জানাবেন কী?muhib k

** রাজনীতি মানুষের কল্যাণের উদ্দেশ্যে হওয়া উচিত। ন্যায় বিচার ও গণঅধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সুস্থ রাজনীতির চর্চা দরকার।
রাজনীতি হওয়া উচিত অনিয়ম ও সহিংসতামুক্ত এর জন্য বাংলাদেশের রাজনৈতিক নেতৃত্বকে আরো সৎ ও সংযমী হতে হবে। আর নিরাপদ শান্তিময় বিশ্ব পেতে হলে বিশ্ব নেতাদের আরো ন্যায় নিষ্ঠা ও উদারতা প্রয়োজন। প্রতিটি জাতীর স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বিশ্বাস ও সংস্কৃতির প্রতি অন্যদের শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত। পারস্পরিক সহিষ্ণুতা সহমর্মিতা ও ন্যায় পরায়নতাই বিশ্ব মানবতার শৃংখলা ও সম্প্রীতি ধরে রাখতে পারে। হিংসা ও আগ্রাসন কেবল যুদ্ধ ও অশান্তির আগুন ছাড়া আর কিছুই দিতে পারে না।

* একজন ইসলামিক স্কলার হিসেবে বর্তমান বিশ্বের ইসলাম ও মুসলিমদের ব্যাপারে বলুন।

** ইসলাম শান্তি ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিশ্ব মানবতার মুক্তি এবং কল্যাণ সাধনের জন্য পৃথিবীতে এসেছে। বিশ্বের মুসলমানদের ধৈর্য ও নিষ্ঠার সংঙ্গে সে পথেই চলা উচিত। ইসলামের সঙ্গে অন্যায় অনাচার ও সন্ত্রাসবাদের কোন সর্ম্পক কখনই ছিল না, এখনও নেই। তবে অমুসলিম বিশ্বের উচিত ইসলাম ও মুসলিমদের প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা ও আন্তরিকতা প্রদর্শন করে চলা । প্রকৃত মুসলিমরা বিশ্বের আদর্শ নাগরিক এবং মানবতার অমূল্য সম্পদ ।

* আপনার মানবতাবাদী কবিতা ও গানের কোন পংক্তি দিয়ে শেষ করতে চাই।

** ‘জন্ম তোমার কখন কোথায়; সে তো বড় নয়/ কর্ম তোমায় কোথা নিয়ে যায়; সে-ই পরিচয় / তুমি তোমার ধ্যানে ধর্মে, তুমি তোমার জ্ঞানে কর্মে, সব জাত পাত শ্রেণী বর্ণে- কর মানুষের কল্যাণ/ মানবতা মহিয়ান/ মানবতা মহিয়ান/ মানবতা মহিয়ান।’
এ ছাড়াও অন্য একটি গানে আমি বলেছি- ‘মানবতার সঙ্কটে আজ মানুষ যদি মরে/ রাজনীতি আর ধর্ম দিয়ে করবি কী তুই- ওরে?”

* আমাদের সময় দেবার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

** আপনাদেরকেও ধন্যবাদ।

মুহিব খানের কয়েকটি গান ..

https://www.youtube.com/watch?v=DD6vetBBrgM

আওয়ার ইসলাম টোয়েন্টিফোর ডটকম /আরআর

সর্বশেষ সব সংবাদ