কিভাবে এলো ইন্টারনেট?
জুন ০৬, ২০১৬ ৪:১৭ অপরাহ্ণ

আওয়ার ইসলাম ডেস্ক : সময় এখন ইন্টারনেট নির্ভর। পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষ এখন ইন্টারনেটের আওতায়। দরকারি অদরকারি সব কাজে ব্যবহার করছেন ইন্টারনেট। কিন্তু এই যন্ত্রের আবিস্কার কবে? আবিস্কারকই বা কে? বিষয়টি অনেকেরই অজানা।

ইন্টারনেটের ধারনা আসে মূলত ১৯৫০ সালে, ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার কম্পিউটার বিজ্ঞানের অধ্যাপক লিওনার্ড ক্রাইনরক আরপানেটের মাধ্যমে একটা অসংলগ্ন বার্তা স্ট্যানফোর্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউটে পাঠান। আরপানেট নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে। আরপানেট হল যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর ১৯৬৯ সালে একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করে। আরপানেট (ARPANET) এর পূর্ণরুপ Advance Research Project Agency Network. এটিই ছিল প্রথম কম্পিউটার নেটওয়ার্ক। যাই হোক, আগের কোথায় আসি। সেই নেটওয়ার্কটির একটি অংশ, মানে এক প্রান্ত ছিল ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ায় এবং অপর প্রান্ত ছিল স্ট্যানফোর্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউটে । ক্রাইনরকের পাঠানো এই বার্তা ছিল ইন্টারনেটের প্রথম কোন তথ্য! আজকের ফেসবুক বা টুইটার যারা বানিয়েছেন, তাদের মাথায় যে ভাবনা ঘুরতো, ক্রাইনরকের মাথায় একই চিন্তা ঘুরতো। সহজে কিভাবে প্রতিটি মানুষ তথ্য আদান প্রদান করতে পারে।

ইন্টারকানেক্টেড নেটওয়ার্ক। সংক্ষেপে ইন্টারনেট। ১৯৭০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রোগ্রামার রেমণ্ড সামুয়েল টমলিনসন একটি ইমেইল সিস্টেম বানান যাকে SNDMSG বা READMAIL নাম দেওয়া হয়। ১৯৭১ সালে তিনি আরপানেটের জন্য উপযোগী একটি ইমেইল সিস্টেম বানান।

তখন ইন্টারনেট সেরা বৈজ্ঞানিক আবিস্কার হলেও ব্যাবহারসুলভ ইন্টারনেট আসে সত্তরের দশকে। এই পুরদস্তুর ইন্টারনেট আসার জন্য সবচেয়ে বড় অবদান রাখে আইপি (IP) বা ইন্টারনেট প্রটোকল স্যুট। এই ইন্টারনেট প্রটোকলের মাধ্যমে একসাথে লক্ষাধিক আরপানেটের মত কম্পিউটার নেটওয়ার্ক জুড়ে দেওয়া সহজ হয়ে গেল। এভাবে এর পরিধি বাড়তে লাগলো। এই আন্তঃসংযোগকে নাম দেওয়া হল ইন্টারনেট। অর্থাৎ, ইন্টারকানেক্টেড নেটওয়ার্ক। সংক্ষেপে ইন্টারনেট। ১৯৭০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রোগ্রামার রেমণ্ড সামুয়েল টমলিনসন একটি ইমেইল সিস্টেম বানান যাকে SNDMSG বা READMAIL নাম দেওয়া হয়। ১৯৭১ সালে তিনি আরপানেটের জন্য উপযোগী একটি ইমেইল সিস্টেম বানান। তিনিই প্রথম প্রাপক চিহ্নিত করার জন্য @ চিহ্ন ব্যাবহার করেন যা এখনো ব্যাবহার করা হয়।

আশির দশকে ডোমেইন বা .কম ও .ওআরজি এর উৎপত্তি হল। ফলে ওয়েবসাইটের সংখ্যা বাড়তে লাগলো।
১৯৮০ সালে ইউরোপের (CERN) এর গবেষক টিম বারনারস লী WWW বা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব আবিস্কার করলেন।
এবং তিনিই ১৯৮৯ সালে এইচটিটিপি (HTTP) আবিস্কার করেন, এতে অনলাইনে অতি সহজে এবং ধ্রুত তথ্য পাঠানো সম্ভব হল।
এতেই হল বাজিমাত! এখন যেকোনো মানুষ কীবোর্ডে কিছু অক্ষর আর মাউসের এক ক্লিকেই বিশ্ব হাতের মুঠোয় আনতে পারে !

আওয়ার ইসলাম ২৪ ডটকম / আরআর

সর্বশেষ সব সংবাদ