195547

চরফ্যাসনে ইমামকে মারধরের অভিযোগে গ্রেফতার ১

আওয়ার ইসলাম: ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার দুলারহাটে ঈদের নামাজকে কেন্দ্র করে ইমামকে হুমকি ও অপমানের অভিযোগে নুরাবাদ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাজী ফিরোজ কিবরিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে দুলার হাট থানা পুলিশ ফিরোজ কিবরিয়াকে গ্রেফতার করে।

এর আগে গত শনিবার (১ আগস্ট) দুলারহাট থানার নুরাবাদ সামছল হক কমান্ডার বাড়ির দরজায় বায়তুন নুর জামে মসজিদে ইমামের সাথে ঈদের নামাজের সময়সূচি নিয়ে হুমকি মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। মসজিদের ইমামকে মারধরের ঘটনায় গতকাল রোববার বিকেলে দুলারহাট বাজারে কওমী ছাত্রদের ব্যানারে বাজারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে।

বায়তুন নুর জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা নুর হোসেন বলেন, গত শুক্রবার মসজিদ কমিটির সভাপতি মৌলভী আবুল কাশেমসহ মুসল্লিদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঈদের নামাজ ৮টা ৩০মিনিটে শুরু হবে। যথারীতি ৯টা ১০মিনিটে নামাজ শেষ হয়। এরপর নুরাবাদ বিএনপির সভাপতি হাজি ফিরোজ কিবরিয়া তাৎক্ষণিক মুসল্লিদের সমানে আমাকে মারধর করে হুমকি প্রদর্শন করে। এই ঘটনায় মাদরাসার ছাত্ররা বিক্ষোভ মিছিল করে প্রতিবাদ জানায়। গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে সুবিচার না পেয়ে দুলারহাট থানায় মামলা দায়ের করি।

মসজিদ কমিটির সভাপতি বিএনপি নেতা ফিরোজ কিবরিয়ার বাবা মৌলভী আবুল কাশেম বলেন, তার ছেলে ইমামকে মারধর করেনি। তবে নির্দিষ্ট সময়ে ঈদের নামাজ না পেয়ে ইমামকে গালমন্দ করেছে। আমার ছেলে ফিরোজ উত্তেজিত হয়ে মসজিদের ভিতরে মুসল্লিদের সামনে ইমামকে মারধর করার ঘটনা সত্য নয়।

দুলারহাট থানার ওসি মুহা. ইকবাল হোসেন খান বলেন, ইমামকে মারধরের অভিযোগে থানায় মামলা হলে অভিযুক্ত হাজি ফিরোজ কিবরিয়াকে আজ দুপুরে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইমামকে মারধর ও হুমকির ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

-এএ

Please follow and like us:
error1
Tweet 20
fb-share-icon20

ad