194551

সরকার আর শিক্ষিত বেকার চায় না: শিক্ষামন্ত্রী

আওয়ার ইসলাম: সরকার আর শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না বলে উল্লেখ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আয়োজনে বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি এমনটি বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে যত শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিচ্ছেন, চাকরির বাজারে তাদের আদৌ চাহিদা রয়েছে কিনা, তা ভেবে দেখার সময় হয়েছে। যারা বিভিন্ন বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করছেন, তাদের অনেকেই চাহিদা অনুযায়ী চাকরি পাচ্ছেন না।

কোনো ধরনের কারিগরি শিক্ষা না থাকায় তারা বেকার থেকে যাচ্ছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার আর এই ধরনের শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না। সে জন্য সরকার শিক্ষার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষাকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে সামগ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা নতুন করে ঢেলে সাজিয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, আমরা এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে আছি। এর আগের তিনটি শিল্প বিপ্লবের যুগে আমরা জাতি হিসেবে কোনো সুযোগ নিতে পারিনি। তাই এবার চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে আমরা সর্বোচ্চ সুবিধা নিতে চাই। বর্তমানে দেশ ও আন্তর্জাতিক শ্রমবাজার দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে।

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ফলে পরিবর্তিত শ্রমবাজারে চাহিদা অনুযায়ী প্রযুক্তি ও দক্ষতার সমন্বয় ঘটিয়ে আমাদের বিপুল জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরিত করতে হবে। আর এ লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। সরকার মনে করে দক্ষ মানব সম্পদের চেয়ে কোনো সম্পদই বড় নয়।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস, এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক জুয়েনা আজিজ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম খান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান সচিব আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, যুব ও ক্রীড়া সচিব আকতার হোসেন, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান হাসিবুল আলম, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের বাংলাদেশ প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ, আইএলওর বাংলাদেশ প্রতিনিধি টওমো পুটিয়ানান ও গণস্বাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী।

-এটি

ad