193220

কুয়েতে জব্দ হচ্ছে পাপুলের ১৩৮ কোটি টাকা

আওয়ার ইসলাম: অর্থ ও মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেপ্তার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদুল ইসলাম পাপুলের ৫০ লাখ দিনার জব্দ হতে যাচ্ছে।

ইতোমধ্যেই কুয়েতের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে দেশটির পাবলিক প্রসিকিউটর এ বিষয়ে সুপারিশ করেছেন।কুয়েতের প্রভাবশালী দৈনিক আল-কাবাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কুয়েতে পাপুলের প্রতিষ্ঠানের মূলধন ৩০ লাখ দিনারসহ মোট ৫০ লাখ দিনার জব্দ করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

এর আগে, পাপুলের সঙ্গে অপরাধে এক সংসদ সদস্যসহ আরও ব্যক্তি জড়িত বলে প্রতিবেদন ছাপায় আল-কাবাস। তিন জন মিলে আনুমানিক ১৬৩ মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ২০ হাজার শ্রমিককে বিদেশ পাঠিয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদে অর্থ লেনদেনের কথা স্বীকার করেছেন পাপুল।

গত ৬ জুন কুয়েতের মুশরেফ আবাসিক এলাকা থেকে পাপুলকে গ্রেপ্তার করে দেশটির অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। তবে তার গ্রেপ্তারের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেনি বাংলাদেশ সরকার।

এদিকে, পাপুলের সাথে বিভিন্ন অবৈধ কাজে সাহায্যকারী সন্দেহে কুয়েত জনশক্তি মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক আহমদ আল মুসা পদত্যাগ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কুয়েতের মন্ত্রিসভার এক সদস্য আহমেদ আল মুসাকে হুশিয়ারী করেছেন। তাকে পরিস্কার বলে দেয়া হয়েছে, আটক বাংলাদেশি সংসদ সদস্যদের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে জনশক্তি মন্ত্রনালয়ের মহাপরিচালকের পদে থাকতে হবে।

জানা গেছে, শহিদ ইসলাম পাপুলকে জিজ্ঞাসাবাদে যাদের নাম এসেছে, তাদের মধ্যে মুসার নামটিও আলোচনায় রয়েছে। এটা জানতে পেরে মুসা পদত্যাগ করতে চেয়েছিলেন। কিন্ত কুয়েতের অর্থনীতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মরিয়ম আল আকিল তাকে স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিয়েছেন, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত আহমেদ আল মুসাকে স্বপদে বহাল থাকতে হবে।

-এ

ads