191758

‘চলমান দুর্যোগ মোকাবলোয় ধৈর্য্য ও সহমর্মিতার শিক্ষাকে কাজে লাগাতে হবে’

আওয়ার ইসলাম: আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল- ফিতর ১৪৪১ হিজরী উপলক্ষে দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন খেলাফত মজলিসের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের।

আজ শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ শুভেচ্ছা বাণীতে নেতৃদ্বয় বলেন, দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার মধ্যদিয়ে সংযম ও সহমর্মিতার শিক্ষায় সমুজ্জল ঈদ-উল- ফিতর বিশ্ব মুসলিমের দ্বারে সমুপস্থিত। সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এ বছর ঈদ-উল- ফিতর কিছুটা ভিন্ন আঙ্গিকে উদযাপন করতে হবে।

‘ব্যক্তিগতভাবে স্বাস্থ্য সতর্কতা প্রতিপালনে বিশেষ গুরুত্বারোপ করতে হবে। এর মধ্যে বাংলাদেশে যোগ হয়েছে সাম্প্রতিক আম্ফানের ক্ষয়ক্ষতি। চলমান দুর্যোগ মোকাবলোয় মাহে রমজানের ধৈর্য্য ও সহমর্মিতার শিক্ষাকে কাজে লাগাতে হবে। ধনী-গরীবের মধ্যে আনন্দ ভাগাভাগি করার এক মোক্ষম সময় হচ্ছে ঈদ-উল- ফিতর। সহমর্মিতার শিক্ষায় উজ্জীবিত হয়ে সবাইকে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত, নির্যাতিত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে।’

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, সিয়াম সাধনার সংযমের শিক্ষাকে ধারণ করে ব্যক্তি ও সমাজকে কলুষমুক্ত করতে হবে। হত্যা, ধর্ষণ, জুলুম, নির্যাতন, সুদ, ঘুষ, দুর্নীতিসহ সমাজে বিদ্যমান অন্যায়, অসংগতি ও অবিচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। জনগণের হৃত অধিকার প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট হতে হবে। মাহে রমজানের উপহার আল-কুরআনকে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে প্রতিষ্ঠার জন্যে সর্বাত্মকভাবে প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

নেতৃদ্বয় বলেন, পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের এই শুভক্ষণে করোনার প্রাদুর্ভাবে মৃত্যুবরণকারীদের জন্য গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি এবং আক্রান্ত ও অসুস্থদের আশু সুস্থতা কামানা করছি। পারস্পরিক সহযোগিতা, সহমর্মিতা ও মহান আল্লাহর সাহায্যের মাধ্যমে বিশ্ববাসী চলমান সংকট ও মহাদুর্যোগ উত্তরণে সক্ষম হবে, আশা করি।

শুভেচ্ছা বাণীতে নেতৃদ্বয় বাংলাদেশের জনগণ ও মুসলিম উম্মাহসহ বিশ্ববাসীর শান্তি, কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।

-এএ

ad