188473

এখন সময় পজেটিভ হওয়ার, আল্লাহকে স্মরণ করার

আব্দুল কাদির আল মাহদি
বার্সেলোনা, স্পেন থেকে>

প্রিয় দেশবাসী! সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও এখন মহামারীর কবলে নিপতিত। করোনাভাইরাসের আক্রমণে নিস্তব্ধ পুরো দেশ। এমন সময়ে দলাদলি ভুলে সবার এক হয়ে কাজ করা দরকার। এখন অযথাই কারো ভুল ধরা কিংবা সমালোচনা করার সময় নয়। রাজনীতির ফাঁকাবুলি আওড়ানোর সময়‌ও এখন নয়। দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এতকিছুর পরও আমরা এসব প্রত্যক্ষ করছি।

তাদের প্রতি আমার বিনীত অনুরোধ- প্লিজ কাঁদা ছোড়াছুড়ি বন্ধ করুন! এখন এগুলোর সময় নয়। সারা বিশ্বের মানুষ হাহাকার করছে। প্লিজ এসব ছেড়ে দিন। তাওবা করুন, ইস্তেগফার করুন, আল্লাহর কথা স্মরণ হয় এমন কিছু বলুন, এমন কিছু লিখুন।

অন্যের উপর বিপদ দেখে হাসি তামাশা বন্ধ করুন। মনে রাখতে হবে; বিপদ কিন্তু দেখে দেখে আসে না! অন্যের উপর বিপদ দেখে হাসি তামাশা করা বনী-ইসরাইলের স্বভাব।

স্মরণ করুন আল্লাহ তা’আলার ঘোষণা- فَلْيَضْحَكُوا قَلِيلًا وَلْيَبْكُوا كَثِيرًا جَزَاءً بِمَا كَانُوا يَكْسِبُونَ অতএব, তারা সামান্য হেসে নিক এবং তারা তাদের কৃতকর্মের বদলাতে অনেক বেশী কাঁদবে। (আল কোরআন- ৯/৮২)

অন্যদের ভুল-ভ্রান্তি মাফ করুন। অন্যদের ভুল-ভ্রান্তি ছোট করে দেখুন। পজেটিভ মনোভাব অর্জন করুন। ক্ষমাকারীকে আল্লাহ তা’আলাও ক্ষমা করে দেন-ۖ وَلْيَعْفُوا وَلْيَصْفَحُوا ۗ أَلَا تُحِبُّونَ أَنْ يَغْفِرَ اللَّهُ لَكُمْ ۗ وَاللَّهُ غَفُورٌ رَحِيمٌ
তাদের ক্ষমা করা উচিত এবং দোষক্রটি উপেক্ষা করা উচিত। তোমরা কি কামনা কর না যে, আল্লাহ তোমাদেরকে ক্ষমা করে দিবেন? আল্লাহ ক্ষমাশীল, পরম করুণাময়। (আল কোরআন- ২২/২৪)

ۖ فَمَنْ عَفَا وَأَصْلَحَ فَأَجْرُهُ عَلَى اللَّهِ ۚ إِنَّهُ لَا يُحِبُّ الظَّالِمِينَ যে ক্ষমা করে ও আপোষ করে তার পুরস্কার আল্লাহর কাছে রয়েছে; নিশ্চয় তিনি অত্যাচারীদেরকে পছন্দ করেন না। (আল কোরআন+ ৪২/৪০)

তাকাব্বুরিকে ডাস্টবিনে নিক্ষেপ করুন। তাকাব্বুরি আল্লাহ তা’আলার ক্রোধকে বাড়িয়ে দেয়। শয়তানকে খুশি করে। সমাজে মুসিবত নেমে আসে। কিবর হচ্ছে শয়তানের স্বভাব।

ۖ قَالَ أَنَا خَيْرٌ مِنْهُ خَلَقْتَنِي مِنْ نَارٍ وَخَلَقْتَهُ مِنْ طِينٍ সে বলল: আমি তার চেয়ে শ্রেষ্ঠ। আপনি আমাকে আগুন দ্বারা সৃষ্টি করেছেন এবং তাকে সৃষ্টি করেছেন মাটির দ্বারা। (আল কোরআন- ৭/১২)

নম্রতা ভদ্রতা শো-আপ করুন! আল্লাহ তা’আলার রহমত নাজিলের কারণ হবে। وَلَا تَحْزَنْ عَلَيْهِمْ وَاخْفِضْ جَنَاحَكَ لِلْمُؤْمِنِينَ তাদের জন্যে চিন্তিত হবেন না আর ঈমানদারদের জন্যে স্বীয় বাহু নত করুন। (আল কোরআন ১৫/৮৮)

আমেরিকা, ইসরাইল, চীনকে আল্লাহর আজাব পাকড়াও করছে। এরকম চিন্তা একেবারে দিলের ভিতর থেকে ঝেড়ে ফেলুন। নিরবে নিভৃত্বে আল্লাহর দাসত্ব করুন। যেভাবে বিশ্বে মৃত্যুর মিছিল শুরু হয়েছে। বলা যায় না কোন সময়, কার ডাক চলে আসে! প্লিজ প্লিজ একে অন্যের উপর মেহেরবানী করুন।

আল্লাহপাক যেন আমাদের সব মঙ্গলের ফায়সালা করেন। আমিন।

-এটি

ad