149324

চট্টগ্রাম নগরীতে প্রকাশ্যে ধূমপান বন্ধ করা হবে: সিটি মেয়র

আওয়ার ইসলাম:আগামী এক বছরের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরীতে প্রকাশ্যে ধূমপান বন্ধ করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

সেই সাথে সিটি কর্পোরেশনের আওতাভুক্ত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, ক্লিনিকসহ গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক স্থানে একশ গজের মধ্যে সকল প্রকার তামাকের দোকান বন্ধ করার কথাও বলেছেন তিনি।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকালে বেসরকারি সংস্থা- বিটা, ইলমা ও ক্যাবের চট্টগ্রাম শাখার উদ্যোগে তামাকমুক্ত চট্টগ্রাম নগরী বিনির্মাণে ‘সাংস্কৃতিক প্রচারাভিযান’ শীর্ষক কার্যক্রম উদ্বোধনে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে এসব কথা বলেন চট্টগ্রামের মেয়র ।

মেয়র নাছির বলেন, ‘চট্টগ্রাম শহরের কোথাও প্রকাশ্যে ধূমপান করতে দিব না। নির্দিষ্ট জায়গা ব্যতিত ধূমপান করা যাবে না। এটা যৌক্তিক সময়ের মধ্যেই করব। আগামী ছয় মাস থেকে এক বছরের মধ্যে বাস্তবায়ন করব।

বাংলাদেশের গ্রহণযোগ্যতা ও পরিচিতি নানা কারণে এখন আন্তর্জাতিক মানের। এটা করতে পারলে শুধু দেশের নয় চট্টগ্রামের পরিচিতিও সারা বিশ্বে বাড়বে। এই উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে নগরীতে ধূমপানে আগ্রহীর সংখ্যা কমে যাবে বলেও আশাবাদ মেয়রের।

মেয়ের বলেন, নতুন প্রজন্মের হাতেই পরিচালিত হবে আগামীর বাংলাদেশ। কিন্তু ধুমপান আসক্তি সব মাদকাসক্তির প্রাথমিক পর্যায় এ কথা প্রমাণিত ও সত্য। তাই এই প্রজন্মকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে হলে তামাক মুক্ত নগরী বিনির্মাণ আজ সময়ের দাবি।’

অনুষ্ঠানে মেয়র ঘোষণা দেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রাঙ্গণে কোনো পান-সিগারেটের দোকান থাকবে না। তিনি বলেন, এ শহর থেকে আমি বিলবোর্ড উচ্ছেদ করেছি, এটাও পারব। আমি পান-সিগারেট খাই না, এই নৈতিক শক্তি আমার আছে।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, কিশোর-তরুণদের নিরাপদ রাখতে পারলে জাতি এই অভিশাপ থেকে রক্ষা পাবে। প্রত্যেক অফিস ধূমপানমুক্ত রাখতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিটা’র নির্বাহী পরিচালক শিশির দত্ত বলেন, আইনে আছে স্কুল ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তিনশ গজের মধ্যে কোনো তামাক বিক্রয় কেন্দ্র থাকবে না। আশা করি, তিন মাসের মধ্যে এটা বাস্তবায়ন হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ব্লুমবার্গ ইনিশেয়েটিভ অনুসারে বিশ্বের যে ২০টি শহরে তামাকমুক্ত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে তারমধ্যে চট্টগ্রাম একটি। এতে শহরের তামাক বিক্রয় কেন্দ্রে তামাকের বিজ্ঞাপন, প্রণোদনা ও প্রদর্শনী অবস্থা নিরূপণ শীর্ষক গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করেন বিটা’র টিম লিডার প্রদীপ আচার্য।

আরএইচ/

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *