137629

বাড়িরকাজের অঙ্ক না পেরে পুলিশ কন্ট্রোলে ফোন

আওয়ার ইসলাম: চোর, ডাকাত ধরতে পুলিশকে ফোন করেন ঠিক আছে, কখনও জটিল অঙ্ক কষতে না পেরে পেন্সিল কামড়ে ভুরু কুঁচকিয়ে পুলিশকে ফোন করেছেন? অবাক হওয়ার কিছু নেই। এমনটা কিন্তু সত্যিই হয়েছে। হোমওয়ার্কের অঙ্ক কষতে না পেরে সোজা পুলিশকে ফোন করে দিয়েছে এক খুদে।

৯১১ ডায়াল করে খুদে জানিয়েছে, হোমওয়ার্কে মেলা অঙ্ক দিয়েছেন তার শিক্ষক। সবক’টিই বেশ জটিল। পুলিশ যদি অঙ্ক কষে দেয়, তাহলে বেশ হয়।

প্রথমে হতভম্ব হলেও খুদের মিষ্টি, আদুরে গলা শুনে মন গলে যায় অ্যানটোনিয়া বান্ডের। কড়া ধাতের পুলিশ অফিসার বলেই তার পরিচিতি। পুলিশ কন্ট্রোলে ফোন করে মস্করা তার মোটেই পছন্দের নয়। আগেও এই ধরনের ফোন কলের কড়া জবাব দিয়েছেন তিনি।

কিন্তু খুদের আবদার শুনে বকুনির বদলে বেশ খুশিই হন অ্যানটোনিয়া। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করে এই খবর সকলকে জানান তিনি। নিমেষের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় সেই পোস্ট।

ঘটনাটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। ইন্ডিয়ানার বাসিন্দা ওই খুদের নাম যদিও প্রকাশ্যে আনেনি ওই মহিলা পুলিশ অফিসার। তবে আবেগের সঙ্গে তিনি লিখেছেন, ‘অপরাধীদের সঙ্গে পাল্লা দিতে দিতে আমরাও ক্লান্ত। সারাদিনের ব্যস্ততায় এই ফোন যেন এক ঝলক তাজা হাওয়া।’

খুদের আবদার মিটিয়ে অঙ্ক কষতেও সাহায্য করেছেন অ্যানটোনিয়া। তার সঙ্গে গল্পও করেছেন প্রাণভরে।

লাফায়েত্তে ইন্ডিয়ানা পুলিশের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে দেদার শেয়ার হয়েছে এই পোস্ট। এই মুহূর্তে লাইকের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১২০০। কমেন্ট বক্সে পুলিশ কর্তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন নেটিজেনরা। শহরবাসীর সুরক্ষা ও নিয়মশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি এক জন পুলিশ অফিসার মানবিকতার যে নিদর্শন রেখেছেন সেটা অসামান্য। নিজের ব্যস্ত সময়ের মধ্য়েও একজন দায়িত্বশীল মায়ের মতো একটি শিশুর সঙ্গ দিয়েছেন, এই খবর মন জয় করে নিয়েছে বিশ্ববাসীর।

কেপি

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *